President

রাত পোহালেই ঈদ! ভেবেও কেমন যেন খুশিতে ভরে উঠছে মন, তাই না? আসলেই তাই। সকাল থেকেই তো কোরবানির পশু জবাই ও মাংস বণ্টনে ব্যস্ত থাকবে সবাই। দুপুরে খাওয়াদাওয়ার পরেই বিকেলে একটু বিশ্রাম এবং সন্ধ্যা থেকেই শুরু হয়ে যাবে দাওয়াতের ধুম!

আপনি সাধারণ সময়ে যেমন মেকআপ করেন কিংবা সকালের হালকা স্নিগ্ধ সাজ কিন্তু রাতের সঙ্গে খাপ খাবে না মোটেই। এ লক্ষ্যেই ঈদের রাতে কেমন মেকআপ হবে সে ব্যাপারে কিছু টিপস নিয়ে হাজির হলাম। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে সেগুলো জেনে আসা যাক-
সকালের মেকআপ ও রাতের মেকআপের পার্থক্য

সকালের দিকে নারীরা সাধারণত রঙ ও স্টাইল নিয়ে খেলতে পছন্দ করেন না কারণ তারা মনে করেন অফিসে মনে হয় এটা দৃষ্টিকটু লাগবে। এজন্য তারা হালকা মেকআপ করেই স্বচ্ছন্দ বোধ করেন। কিন্তু রাতের ব্যাপার কিন্তু সম্পূর্ণ আলাদা। রাতে একটু ভারি মেকআপ পছন্দ করেন সবাই। ফাউন্ডেশন, কনসিলার, গাড় লিপস্টিক ও ব্লাশঅন দিয়ে সাজে পূর্ণতা আনুন। এগুলো আলোতেও বেশ লাগে!
ভালো বেস দিয়ে শুরু করুন মেকআপ

নিখুঁত ও পরিপূর্ণ মেকআপের একটি অন্যতম প্রধান উপকরণ হলো ভালো বেস করা। ফাউন্ডেশন ও কনসিলার দিয়ে আপনি বেস তৈরি করতে পারেন।

আপনাকে প্রথমেই আপনার গায়ের রঙের সঙ্গে মানানসই ফাউন্ডেশন পছন্দ করতে হবে। এতে করে আপনাকে খুব বেশি কালো কিংবা সাদা দেখাবেনা, ন্যাচারাল লাগবে। আপনি ফাউন্ডেশন দেওয়ার জন্য ব্রাশ কিংবা স্পঞ্জ ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আপনার ত্বকের যাবতীয় ব্রণের দাগ, খুঁত সবকিছু খুব সুন্দরভাবে ঢেকে যাবে।

অতঃপর মুখের ফাউন্ডেশন সেট করার জন্য আপনি ফেস পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। সারাদিনের জন্য একদম নিশ্চিন্ত হতে পারবেন তাহলে। মেকআপ নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না।
চোখ সাজাবেন কীভাবে?

রাতের মেকআপে চোখ নিয়ে খেলা করার বেশ সুযোগ থাকে। প্রথমেই আই-ব্রো ভালো করে এঁকে নিন। তারপর চাইলে হেভি আইলাইনার ব্যবহার করতে পারেন। অবশ্যই মাসকারা ব্যবহার করুন। চোখ জোড়া খুব প্রাণবন্ত মনে হবে।

এ পর্যায়ে আইলাইনার দেওয়া আপনার জন্য খুব কঠিন ও কষ্টকর মনে হতে পারে। কিন্তু কয়েকবার অনুশীলনের পরেই আপনি শিখে যাবেন কিভাবে আইলাইনার দিতে হয়। প্রতিদিন চেষ্টা করুন।

মেকআপ একেবারে চোখ ধাঁধানো করে তুলতে আপনি চাইলে ফলস আইল্যাশ কিংবা নকল পাপড়ি পড়তে পারেন চোখে, তবে অবশ্যই যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করবেন।
গালে ব্লাশঅন দিন

খানিকটা ব্লাশঅন গালে লাগালে আপনি নিমিষেই খুব ন্যাচারাল ও ফ্রেশ একটা লুক পাবেন। বেশিরভাগ নারীই পাউডার ব্লাশঅন ব্যবহার করে অভ্যস্ত। আপনাকে যা করতে হবে সেটি হলো আঙুলে অল্প একটু ব্লাশঅন নিয়ে গালে মিশিয়ে দিন। কোনভাবেই অতিরিক্ত লাগানো যাবে না।

ঠোঁটের সাজ

রাতে আপনি ইচ্ছা করলেই বিভিন্ন লিপস্টিক নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে পারেন। গাড় রঙের লিপস্টিক বেশ ভালো মানিয়ে যাবে আপনার ঠোঁটের সঙ্গে। অবশ্যই লিপস্টিক ব্যবহারের আগে ঠোঁট লিপলাইনার দিয়ে সুন্দরভাবে এঁকে নিন। তাহলে আপনার ঠোঁটের আকৃতি দারুণভাবে ফুটে উঠবে।

রাতের মেকআপ পুরোটাই সৃজনশীলতার ব্যাপার। কোন লুক, স্টাইল আপনার সঙ্গে মানাচ্ছে সেটি আপনিই ঠিক করুন। মাঝেমধ্যে এক্সপেরিমেন্ট করে দেখাই যায় বিভিন্ন লুক নিয়ে। কিন্তু মনে রাখবেন ঈদের সময় কোন ধরণের ঝুঁকি না নেওয়াই ভালো। ঈদে কেমন মেকআপ করবেন সেটি আগেই মোটামুটিভাবে ঠিক করে রাখুন। তাহলে সময় ও ঝক্কি দুটোই কমবে। ঈদের শুভেচ্ছা সবাইকে।

সূত্র: Evergreen Beauty College

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর/এইচ কে

০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২১:৪৭ পি.এম