President

নদীর পানিতে ভাসতে থাকা এক শিশুর মরদেহের ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে। রোহিঙ্গা সংকট কতটা গভীর এই ছবি সেটিই জানান দিচ্ছে।

একটি ছবিতে শিশুটির মরদেহ কাদা পানিতে ভাসতে দেখা যায়। অপর ছবিটি মরদেহ উদ্ধারের পর তোলা৷ এই ছবি অনেকের মাঝে বেদনা তৈরি করেছে। দুটি ছবিই আপলোড বা শেয়ার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে দাবি করেছেন, 'রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সহিংস অভিযান থেকে পালিয়ে বাঁচতে নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে চেয়েছিল শিশুটি৷ কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি৷ ডুবে মারা গেছে সে৷' আবার কেউ কেউ ছবিটির স্থান, পরিচয় ও সূত্র ( সোর্স) জানতে চেয়েছেন। পানিতে ভাসতে থাকা ছোট নিথর দেহের ছবিটির সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ। তবে অনুসন্ধানে এখনও সেই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি।

গুগলের রিভার্স ইমেজ সার্চ এবং টিনআইতে অনুসন্ধান করে দেখা গেছে, গত সোমবার অল্প সময়ের ব্যবধানে ‘এনসোনহাবের' নামের একটি তুর্কি নিউজ সাইটে এবং ‘জাফনা মুসলিম' নামের একটি তামিল ব্লগসাইটে ছবিটি প্রকাশ করা হয়৷ ব্লগসাইটটিতে ছবিটি সম্পর্কে যা লেখা রয়েছে তাতে মিয়ানমারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে৷ আর লেখকের নাম রয়েছে আস-শেখ টিএম মুফারিস রাশাদী৷ তিনি তার ফেসবুকেও ছবি দু'টি প্রকাশ করেন, যা শুধু তার প্রোফাইল থেকেই শেয়ার হয়েছে পাঁচ শতাধিকবার৷

ফটোফরেনসিক ওয়েবসাইট সার্চ দিয়ে দেখা গেছে, ছবিটি পুরাতন নয়৷ আর ইন্টারনেটে আগে ছবিটি কখনো প্রকাশ হয়নি বলেই জানাচ্ছে গুগল৷ টুইটারেও সেটির কোনো পুরনো সংস্করণ পাওয়া যায়নি৷

এ দিকে রোহিঙ্গাদের আর্তনাদে হৃদয়বিদারক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে। ওপারে মিয়ানমার বাহিনীর নিমূল অভিযানে শত শত রোহিঙ্গা মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন। বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে কক্সবাজারের টেকনাফে বুধবার ভোরে রোহিঙ্গা বোঝাই একটি নৌকা ডুবির ঘটনায় দুই শিশুসহ চারজন নিহত হয়েছেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর/আইএস

৩০ আগষ্ট, ২০১৭ ১৭:৩৫ পি.এম