President

জীবনে প্রত্যেকটি মানুষেরই কিছু চাওয়ার থাকে, কিছু হওয়ার থাকে, কিছু কাজ করার থাকে। কিন্তু প্রতিনিয়ত একের পর এক বাড়তে যাওয়া নানারকম বাহ্যিক চাপ ও ঘটনার দ্বারা প্রায়ই আমরা ভুলে যাই আমাদের ইচ্ছে আর লক্ষ্যকে। পা পিছলে যায় আমাদের সঠিক পথ থেকে। ফলে জীবনে নেমে আসে হতাশা। তবে এই ঝামেলা থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে মাত্র ৫ মিনিটের একটি কাজ। আর সেটি হল- নিজেকে কোথায় যেতে হবে সেটা বলে দেওয়া।

আর এভাবে নিজেকে নিজের লক্ষ্য মনে করিয়ে দেওয়ার কাজটি খুব সহজে, কার্যকরীভাবে আর সময় বাঁচিয়ে করা যায় যদি কিনা সেটা কোথাও লিখে ফেলা যায়। না, খুব বেশি সময় এটি আপনার নেবেনা। প্রতিদিন কী করছেন, কী সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন, কী করতে চান- এই ব্যাপারগুলো ৫ মিনিট ব্যায়েই লিখে ফেলা সম্ভব। তবে সেটা তখনই সর্বোচ্চরকম কার্যকরী হবে যখন সঠিক উপায়ে ঠিক ঠিক ব্যাপারগুলোকে লিখবেন আপনি কাগজে, মনে করিয়ে দেবেন নিজেকে। এক্ষেত্রে মনে রাখুন-

১. প্রতিদিন পাঁচ মিনিটের জন্যে হলেও সেই কাজটি করুন যেটি করতে আপনি ভালোবাসেন। নানারকম কাজকর্ম, মানসিক চাপ, ঝামেলা আর সমস্যা আমাদের জীবনে থাকবেই। কিন্তু তারপরেও তো মানুষ বাঁচে। নতুন করে ভাবে, ভালো থাকার চেষ্টা করে। আনন্দে থাকার চেষ্টা করে। আর তাই অনেক অনেক কষ্টের মাঝেও একটু সুখ, একটু হাসি খুঁজে নিতে সেই কাজটি প্রতিদিন একটু করে করুন যেটা কিনা আপনার মনকে ভালো করে দেয়।

২. কেবল সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ জিনিসগুলোই করার তালিকাতে রাখুন। যদি এমনটা দেখতে পান যে, আপনার প্রতিদিনের কাজগুলো আর কাজের তালিকাগুলো অহেতুক আর অপ্রয়োজনীয় ব্যাপার ভর্তি তাহলে সেগুলোকে সরিয়ে দিয়ে কেবল সেই কাজগুলোকে স্থান দিন যেগুলো সত্যিই আপনার কাছে গুরুত্ব রাখে। মানুষের মন রাখতে বা করতে হবে বলে নয়, চেষ্টা করুন তালিকাতে নিজের চোখে দরকারী কাজগুলোকেই রাখতে।

৩. একই ধরনের কাজগুলোকে একসাথে করে ফেলুন। এই যেমন- হয়তো এমন কোথাও একটি কাজে গেলেন যেখানে অন্য আরেকটি কাজও আছে আপনার। চেষ্টা করুন সেগুলোকে একসাথে করে ফেলার। শুধু স্থানের ক্ষেত্রে নয়, বরং কাজের ধরন ভেদেও সেগুলোকে এক সারিতে ফেলে কাজ সম্পন্ন করুন।

৪. নিজেকে সময় বেঁধে দিন। এমনটা সত্যিই প্রমাণিত যে, নিজের সবগুলো কাজের নির্দিষ্ট একটি সময় বেঁধে দিলে সেটা শেষ হয়ে যায় তাড়াতাড়ি। লক্ষ্য পূরণ হয় সহজেই আর কাঙ্ক্ষিত সময়েই। পোমোদোরো কৌশল নামের এই প্রক্রিয়াটি নির্দিষ্ট একটি কাজে মনযোগ দিতে ও কাজটি সম্পূর্ণ করতে বেশ সাহায্য করবে আপনাকে।

৫. ছোট ছোট কাজকে ফেলে না রেখে তালিকার অন্তর্ভূক্ত করে নিন। কারণ, আপনার আজকের করা এই ছোট ছোট কাজগুলোই পরবর্তীতে গিয়ে বড় কোন লক্ষ্যকে অর্জনে সাহায্য করবে আপনাকে। প্রতিদিন আপনার নেওয়া এই ছোট ছোট পদক্ষেপগুলোর অর্জন নিজের বড় কোন স্বপ্নের খুব কাছাকাছি নিয়ে যাবে আপনাকে।

১০ এপ্রিল, ২০১৭ ১৮:৫৪ পি.এম