President

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের রাস্তায় ভিড়ের মধ্যে গাড়িবোমা হামলায় অন্তত ৯৫ জন নিহত এবং আরো একশ ৫৮ জন আহত হয়েছেন। শনিবারের ওই হামলার দায় নিয়েছে তালেবান।

৪৫ বছর বয়সী নাজ্জার আহমদও গুরুতর আহত হয়েছেন। তিনি বলেন, আমার চোখের সামনে চতুষ্কোণ কিছু একটা দেখলাম। তাার পর অামি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। জ্ঞান ফেরার পর যখন আমি চোখ খুললাম, ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে থাকা মরদেহ চোখে পড়লো। তিনি আরো বলেন, সত্যিই বীভৎস দৃশ্য ওইটা। আমি এর আগে এরকম পরিস্থিতি কখনো দেখিনি।


দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, যেখানে অ্যাম্বুলেন্সে রাখা বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে ওই এলাকায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পুরাতন ভবন এবং বেশ কয়েকটি দূতাবাস রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় রয়েছে সেখানে। বহু ব্যবসায়ী ওই এলাকায় প্রতিদিন ভিড় জমান।

কাবুল পুলিশের মুখপাত্র বাসের মুজাহিদ জানান, প্রথম তল্লাশি চৌকি দ্রুত অতিক্রম করে গাড়িটি চলে আসার পর পুলিশ তা আটকে দেয়। সে সময় গাড়িটি ভিন্ন রাস্তা ধরে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

তিনি আরো বলেন, পরে পুলিশ ওই গাড়িটি থামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু তার আগেই ওই অ্যাম্বুলেন্স বিস্ফোরিত হয়।

শহরের সরকারি হাসপাতালে আহতদের ভিড় লেগে গেছে। সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সে ক্ষেত্রে নিহতের সংখ্যা আরো বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াহেদ মাজরোহ জানান, একেবারে খারাপ অবস্থা। পরিস্থিতি ভয়াবহ। ভয়াবহ কাণ্ড ঘটে গেছে। আমি চোখ মেলে সেই দৃশ্য দেখতে পারছি না। পরিস্থিতিটা আসলেই দেখার মতো নয়।

ইতোমধ্যেই হামলার বিরোধিতা করে বিক্ষোভ করেছেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির সমর্থকরা। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ রাখার চেষ্টা করছেন আশরাফ ঘানি।

সূত্র : নিউইয়র্ক টাইমস

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

২৭ জানুয়ারী, ২০১৮ ২২:০৯ পি.এম