President

রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে আইসিইউ (ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট) থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। রোববার সকালে তাকে ল্যাবএইড হাসপাতালের ৬০১ নম্বর কেবিনে স্থানান্তর করা হয়।


ল্যাবএইড হাসপাতালের কর্পোরেট কমিউনিকেশন্স বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার সাইফুর রহমান লেনিন এ খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, তার অবস্থা ভালোই। আগের চেয়ে শারীরিক অবস্থার বেশ উন্নতি হয়েছে।

এর আগে শনিবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে ল্যাবএইড হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট কার্ডিওলজিস্ট ও অধ্যাপক ডা. বরেণ চক্রবর্তী সংবাদিকদের বলেন, মেয়র আইভীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তিনি আমাদের হাসপাতালে যে সমস্যার জন্য এসেছেন, সেটিও উন্নতির দিকে। স্ট্রোকের কারণে তার মস্তিষ্কের পেছনের অংশে ক্ষত হয়েছিল। আমরা গত কয়েকদিন ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পর্যবেক্ষণ করে দেখেছি তার অবস্থা উন্নতির দিকে। তাকে দুই-তিন দিনের মধ্যে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেয়া হবে। আমাদের পরামর্শ থাকবে ১০ থেকে ১৫ দিন পর তিনি যেন আবারও ডাক্তারের সঙ্গে দেখা করেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে নারায়ণগঞ্জ নগর ভবনে থাকা অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েন আইভী। তাৎক্ষণিকভাবে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় চিকিৎসা গ্রহণের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর শুক্রবার সকালে আইভীকে দেখতে যান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। শনিবার তাকে হাসপাতালে দেখতে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার ইস্যু নিয়ে মঙ্গলবার চাষাঢ়ায় হকার ও এমপি শামীম ওসমানের অনুসারীদের সঙ্গে মেয়রের লোকজনদের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় গ্রুপের লোকজনের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

২১ জানুয়ারী, ২০১৮ ২২:২৯ পি.এম