President

টঙ্গীর তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিন শুক্রবার লাখো মুসল্লি একসঙ্গে জুমার নামাজ আদায় করেছেন।
জুমাপূর্ব বয়ান করেন কাকরাইলের মুরব্বি মাওলানা ওমর ফারুক। জুমার নামাজের ইমামতি করেন হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের। টঙ্গী ইজতেমার শীর্ষ মুরব্বি মেজবাহ উদ্দিন আহাম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
জুমার নামাজে অংশ নেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহীদুল হক, গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল ও গাজীপুর সিটি মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নান।
এদিকে নিয়মিত তাবলিগ জামাতের বাইরেও ঢাকা-গাজীপুরসহ ১৬ জেলার কয়েক লাখ মুসল্লি নামাজে অংশ নেন। দ্বিতীয় পর্বে ৭৮ দেশের প্রায় চার হাজার ও প্রথম পর্বের শতাধিক বিদেশি মেহমান জুমায় অংশ নেন।
বৃহত্তম জুমার নামাজে অংশ নিতে ভোর থেকেই ইজতেমা মাঠে আসতে শুরু করেন মুসল্লিরা। দুপুর ১২টার দিকে ইজতেমা মাঠ ভরে আশপাশের খোলা জায়গাসহ সব স্থান জনসমুদ্রে পরিণত হয়।
মাঠে স্থান না পেয়ে অনেকে মহাসড়ক ও অলি-গলিসহ যে যেখানে পেরেছেন পাটি, চটের বস্তা, খবরের কাগজ বিছিয়ে জুমার নামাজে শরিক হয়েছেন। ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেশ কিছুক্ষণের জন্য যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
এর আগে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ও ব্যাপক প্রস্তুতির মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশের এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন।
২১ জানুয়ারি দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ২০১৮ সালের বিশ্ব ইজতেমা।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

১৯ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৪:০৮ পি.এম