President

ছুটির দিনে শুক্রবার শৈত্যপ্রবাহের কনকনে ঠাণ্ডা উপেক্ষা করেই ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় এসেছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সরব হতে শুরু করে মেলা। দুপুরের পর থেকেই ভিড় বাড়তে থাকে। বিকেলে ক্রেতা-দর্শনার্থীর পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ। এ ভিড়ে কেনাবেচা জমে ওঠায় খুশি বিক্রেতারাও। তবে সকালের দিকে বিড় তেমন ছিল না।

শুক্রবার দর্শনার্থীদের জন্য মেলার গেট সকাল ১০টায় খুলে দেওয়া হয়। দুপুরের পর থেকে মেলার গেটে লাইনে দাঁড়িয়ে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে টিকিট কাটতে হয়েছে তাদের। মাসব্যাপী এ মেলা প্রথম ছুটির দিন থেকে জমে ওঠার আশা করেছিলেন বিক্রেতারা।
কলেজ গেট, বিজয় সরণি, আগারগাঁও সিগন্যাল থেকে ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা দল বেঁধে ছুটছেন মেলা প্রাঙ্গণে। মেলার প্রধান গেট দিয়ে ঢুকতেই চোখে পড়ে নানা বয়সের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ লাইন ধরে প্রবেশ করছেন। ছুটির দিন হওয়ায় অনেকেই এসেছেন পরিবার নিয়ে। অনেকে ছুটেছেন পছন্দের পণ্যের খোঁজে স্টল থেকে স্টলে। ক্রেতাদের ভিড়ে হিমশিম খেতে হয়েছে কিছু প্যাভিলিয়ন ও স্টলের বিক্রেতাদের।

মেলায় শীতের পোশাকের দোকানে ভিড় ছিল সবচেয়ে বেশি। পাশাপাশি গৃহস্থালি, খাদ্যপণ্য, শিশুদের খেলনা ও প্রসাধনী সামগ্রীর স্টলগুলোতেও ভিড় ছিল। ইলেকট্রনিক্স পণ্য, রান্নার সামগ্রী ও প্লাস্টিকের দোকানগুলোতেও ক্রেতা-দর্শনার্থী দেখা গেছে।

ব্লেজার বিক্রির দেশি প্রতিষ্ঠান ফিট এলিগ্যান্সের স্টলে ক্রেতা-দর্শনার্থী সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে বিক্রয়কর্মীদের। স্টলটির এক বিক্রয়কর্মী মো. ইব্রাহিম বলেন, বিকেলে ক্রেতা-দর্শনার্থীর উপস্থিতি তাদের প্রত্যাশা ছাড়িয়ে গেছে। শীতের কারণে বিক্রি বেশি বেড়েছে। তাদের স্টলে প্রতিটি ব্লেজার তিন হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে মিলছে। এ ছাড়া অন্যান্য ব্লেজার, শালসহ বিভিন্ন পোশাকের স্টলগুলোতে প্রায় একই রকম ভিড় ছিল। মেলায় দুই হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে বেশিরভাগ স্টলে ব্লেজার বিক্রি হচ্ছে।

মেলায় আমের বাগানের আদলে প্যাভিলিয়ন সাজিয়েছে আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ। এই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ইয়াছির আহমেদ বলেন, দুপুরের পর থেকে ক্রেতাদের চাপ বেড়েছে। প্যাভিলিয়নে বিক্রি হয়েছে প্রত্যাশার চেয়ে বেশি। তিনি বলেন, এবার মেলায় আকিজ অনেক নতুন পণ্য নিয়ে এসেছে। পুদিনা পাতার সুগন্ধে হিউসটন ব্র্যান্ডের কার্বোনেটেড পানীয়, আফি ব্র্যান্ডের নতুন জুস, ম্যাংগো বার ও ওয়াইল্ড ব্রু ব্র্যান্ডের পানীয় প্রদর্শন করা হয়েছে। এ ছাড়া ৬০ টাকা গ্লাসের কাঁচা আমের জুস ও ৭০ টাকা গ্লাসের পাকা আমের জুস বিক্রি হচ্ছে।

কিয়াম, দিল্লি অ্যালুমনিয়াম, ইটালিয়ানো, বেঙ্গল, তানিন, আরএফএলসহ বিভিন্ন কোম্পানির প্যাভিলিয়নে গৃহস্থালি পণ্য কেনাকাটায় ভিড় দেখা গেছে। এসব স্টলে পণ্য বিক্রিতে চলছে নানা ছাড় ও অফার। বেঙ্গলের স্টলে একটি কিনলে একটি ফ্রি অফার দিয়ে ক্রেতা আকর্ষণ করা হয়েছে। আরএফএলের স্টলে ১০ শতাংশ ছাড় ও নানা উপহার রয়েছে।

শিশু খেলনা ও প্রসাধনী সামগ্রীর ব্যবসায়ী আজগর আলী বলেন, মেলার সৌন্দর্যই হলো ক্রেতা-দর্শনার্থী। তাদের ভিড় যত বাড়ছে মেলার সৌন্দর্য তত বাড়ছে। এতে বেড়েছে বেচাকেনাও। গত চারদিনে যে বিক্রি হয়েছে, একদিনেই প্রায় তার দ্বিগুণ বিক্রি হয়েছে।
মেলায় পরিবার নিয়ে ঘুরতে এসেছেন মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা মো. জালাল আহমেদ। তিনি বলেন, ছুটির দিন থাকায় শীত উপেক্ষা করে সবাইকে নিয়ে মেলায় ঘুরতে এসেছেন। ভালো মানের পছন্দের সব পণ্য পাওয়ায় সবাইকে কিনে দিয়েছেন। শীত বেশি থাকায় চারটি ব্লেজার কিনেছেন বলে জানান তিনি।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

০৫ জানুয়ারী, ২০১৮ ২৩:১৭ পি.এম