President

চট্টগ্রামের তরুণ নির্মাতা বাপ্পী আলমগীরের পরিচালনায় হেমন্ত মুখোপধ্যায়ের ‘আয় খুকু আয়…’ গানে অভিনয়ের জন্য জনপ্রিয় অভিনেতা হিল্লোল চট্টগ্রাম এসেছেন। চট্টগ্রামে এসে মুখমুখি হয়েছেন গণমাধ্যমের। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন বিভিন্ন বিষয় নিয়ে।

হিল্লোল বলেন, আজ থেকে কুড়ি বছর আগে একজন পিতা তার ছোট মেয়েকে মেলা থেকে কোন খেলনা কিনে দিতেন। কিন্তু বর্তমান সময়ের পিতা সন্তানকে দামী শপিং মল থেকে খেলনা কিনে দেন। সপ্তাহ শেষে সন্তানকে নিয়ে সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে চলে যান। এই গানের চিত্রায়নে এসব তুলে ধরা হয়েছে, যা দর্শকদের আলাদা কিছু একটা দিতে সক্ষম।

তরুণ নির্মাতা বাপ্পী এবং তার টীম নিয়ে হিল্লোল বলেন, টীমটি বেশ হেল্পফুল। একটু সহযোগিতা পেলে অনেক ভালো করবে। চট্টগ্রামে অনেক সংকটের মাঝেও তারা বেশ দক্ষতার সাথে কাজ সম্পন্ন করেছে।

চট্টগ্রামের মিডিয়া নিয়ে হিল্লোল বলেন, এখানে প্রতিভার কোন অভাব নেই। কিন্তু ঢাকার মতো সহায়ক আইটেমের সংকট আছে। এই যেমন, লাইট দরকার হলো, কোন একটা হাউজে নক করলেই হাজির। ট্রলি দরকার? শুধু দূরত্বে আসতে যতটুকু সময় দরকার। কিন্তু চট্টগ্রামে তা দুষ্কর।

রাজধানীর বাইরে চট্টগ্রামে অভিনয় করতে কেমন লাগছে জিজ্ঞেস করলে হিল্লোল বলেন, চট্টগ্রাম আমারও শহর। শৈশবের দুটো বছর এই শহরে কেটেছে আমার। তাই চট্টগ্রামের প্রতি আমার দূর্বলতা যেমন আছে ভালোবাসা, আন্তরিকতা কোনটার কমতি নেই। উল্লেখ্য, হিল্লোলের পিতা নাসির উদ্দিন আহমেদ ফারুক আমিন জুট মিলস’র জিএম ছিলেন। হিল্লোল নাসিরাবাদ সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেছেন।
শিশু শিল্পী আইনানের অভিনয়ে মুগ্ধ হিল্লোল বলেন, ‘আইনান চমৎকারভাবে শিশু চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলেছে।’ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সাইদুল হাসান খান মিঠু ও নিগার সুলতানা দম্পত্তির বড় সন্তান, চট্টলকুঁড়ির শিক্ষার্থী আইনান তাজরিয়ান খান নিয়মিত চর্চায় থাকলে ভবিষ্যতে ভালো শিল্পী হিসেবে সাস্কৃতিক অঙ্গনে বড় ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আইনান ইতোপূর্বে ‘ছোট্ট ছোট্ট পায়ে’ মিউজিক ভিডিও এবং ‘ইচ্ছে’ শর্ট ফিল্মে অভিনয় করে সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছে। আইনানের পিতা সাইদুল হাসান খান মিঠু মেয়ের জন্য দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আইনান যাতে সুস্থ সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে বেড়ে উঠে দেশীয় সংস্কৃতিতে ভূমিকা রাখতে পারে সেই দোয়া করবেন।’
আদনান ফারুক হিল্লোল, আইনান ছাড়াও এই মিউজিক ভিডিওর অন্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন ডিম্পল। মিউজিক ভিডিওটি প্রয়োজনা করেছেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও ব্যাংকার আহসানুল করিম হিমু। প্রায় ৬ মিনিটের এই গানটি চিত্রায়িত হয়েছে জেলা শিশু একাডেমি, সিআরবি, পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত, আফমিপ্লাজা এবং ওআর নিজাম রোডস্থ সাইদুল খানের ফ্ল্যাটে।

প্রসঙ্গ, জনপ্রিয় এই গানটি ইতোপূর্বে বেশ কয়েক জন পরিচালক চিত্রায়িত করেছেন। ভবিষ্যতেও আরো হবে। তবে বাপ্পীর পরিচালনায় দর্শক সমসাময়িক বিষয়গুলো দেখতে পাবেন বলে জানালেন অভিনেতা আদনান ফারুক হিল্লোল।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০১:২৩ এ.ম