President

দেশ সেরা ডিজিটাল মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট নির্মাতা শিক্ষকদের নিয়ে “গুণগত শিখন, টেকসই উন্নয়ন” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কক্সবাজারের সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে শিক্ষক সম্মেলন-২০১৭ শুরু হয়েছে। অনুষ্ঠানটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেসটু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবংপ্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় যৌথভাবে আয়োজন করেছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে টেলিকনফারেন্স এর মাধ্যমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, এমপি শিক্ষকসম্মেলন-২০১৭ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন। অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্তসচিব মোঃ মহিউদ্দিনখান; প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্তসচিব জিএম হাসিবুল আলম; কক্সবাজারের জেলাপ্রশাসক মোঃআলীহোসেন;ইউনেস্কোর শিক্ষায় আইসিটি বিষয়ক প্রোগ্রামস্পেশালিষ্ট ডঃ জঙ্ঘী পার্ক। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন এটুআই প্রোগ্রামের পলিসি এ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী।

এটুআই প্রোগ্রাম সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজগুলোর সহযোগিতায় সারাদেশে “মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট প্রতিযোগিতা” আয়োজন করে যার মাধ্যমে সারাদেশের বিভিন্ন পর্যায়ে সেরা শিক্ষক নির্বাচিত হয়। শিক্ষকদের কাজের স্বীকৃতি ও সন্মাননা প্রদানের লক্ষ্যে প্রতি বছরের মত এবারও শিক্ষক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।শিক্ষক সম্মেলন-২০১৭- এ মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট প্রতিযোগিতায় বিজয়ী এবং শিক্ষক বাতায়নে নির্বাচিত সপ্তাহের সেরা মাল্টিমিডিয়াকনটেন্ট নির্মাতাসহ প্রায় ৩০০ জন শিক্ষক এবং শিক্ষা কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আজ সারা দেশ থেকে বাছাইয়ের মাধ্যমে মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট প্রতিযোগিতা ২০১৭ জাতীয় পর্যায়ে মনোনীত প্রথম ১৫ জনকে ল্যাপটপ প্রদান করা হয়েছে। বাকি ২০ জনকে স্মার্টফোন প্রদান করা হয়েছে।

এই সম্মেলনে, অংশগ্রহণকারী শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে অর্জিত অভিজ্ঞতা অন্যান্য শিক্ষক এবং নীতিনির্ধারকদের সাথে বিনিময় করার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। শিক্ষকদের এই উদ্দীপনা চলমান রেখে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে শিক্ষক সম্মেলন মাঠ পর্যায়ের শিক্ষকদের অনুপ্রাণিত করবে। শিক্ষক সম্মেলনে দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে শিক্ষকদের অবহতি করা এবং দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে শিক্ষকদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে ৪ টি পৃথক পৃথক সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। সেমিনারের বিষয়গুলো হলো-ভবিষ্যৎ শিক্ষাঃ বৈশ্বিক দৃষ্টিকোণ এবং বাংলাদেশ; পরিবর্তনের পথ প্রদর্শক হিসেবে শিক্ষকের যাত্রা; শিক্ষায় নেতৃত্ব; এসডিজি ৪: গুণগত শিক্ষায়-শিক্ষকদের ভূমিকা ও দায়িত্ব।

উল্লেখ্য, এটুআই এর কারিগরি সহযোগিতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় সারাদেশে প্রায় ২৩,৩৩০-টিরও বেশি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা এবং ৮,৯২৫ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন করা হয়েছে। সকল শিক্ষকদের পেশাগত উন্নয়ন নিশ্চিত করণের উদ্দেশ্যে অনলাইন প্লাটফর্ম ‘শিক্ষক বাতায়ন’ তৈরি করা হয়েছে যার মাধ্যমে ২,৭০,০০০-এর অধিক শিক্ষক তাদের মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট আপলোড এবং ডাউনলোড করার পাশাপাশি ব্লগও কমেন্টের মাধ্যমে তাদের চিন্তা ভাবনা ওমতামত বিনিময় করছেন। শিক্ষায় আইসিটি উদ্যোগ গুলোকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে প্রতিটি জেলায় ‘আইসিটিফরএডুকেশন’ (ICT4E) এম্বাসেডর নির্বাচন করা হয়েছে।
এছাড়া মাধ্যমিকও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপদও কার্যকর আইসিটি ব্যবহারের উপর গুরুত্ব দিয়ে এটুআই এবং শাবি প্রবি-এর যৌথ উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইন প্লাটফর্ম “কিশোর বাতায়ন” তৈরি করা হয়েছে। অন্যদিকে শিক্ষকসহ যেকোন মানুষের দক্ষতা উন্নয়নের জন্যই- লার্নিং প্লাটফর্ম হলো “মুক্ত পাঠ”। ‘শিখুন- যখন যেখানে ইচ্ছে’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে সরকারি- বেসরকারি অংশীদারদের নিয়ে বাংলা ভাষায় সবচেয়ে বড়ই-লার্নিং প্লাটফর্ম গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে এটুআই প্রোগ্রাম।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে এটুআই প্রোগ্রামের ই-লার্নিং স্পেশালিস্ট প্রফেসর ফারুক আহমেদ,প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের পলিসি স্পেশালিস্ট (এডুকেশনাল ইনোভেশন)আফজাল হোসেন সারওয়ার,এটুআই প্রোগ্রাম, শিক্ষা মন্ত্রণালয়,প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এবংবিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০১:১৩ এ.ম