President

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীদেরকে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগ করতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, ‘সরকার দেশের বিভিন্ন স্থানে একশ’টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা ও শিল্প গড়ে তোলার অবকাঠামোও প্রস্তুত করা হয়েছে। আরব আমিরাতের ব্যাবসায়ীরা এখানে যে কোন ধরনের শিল্প স্থাপনের সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন।’

রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত সাঈদ বিন হাজার আল সেহি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এলে প্রধানমন্ত্রী এই আহ্বান জানান।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। প্রেস সচিব বলেন, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ও বিদায়ী রাষ্ট্রদূত দু’দেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট নানা বিষয়ে আলোচনা করেন।

বিদায়ী রাষ্ট্রদূত জানান, তার দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশ ও আরব আমিরাতের মধ্যে তিনটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। এই চুক্তিগুলোর মধ্যে রয়েছে বিমান যোগাযোগ সেবা, নিরাপত্তা সহযোগিতা ও সাজাপ্রাপ্ত বন্দী বিনিময় চুক্তি। এছাড়া বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে দু’টি সমঝোতা স্মারকও সই হয়েছে এই সময়ের মাঝে।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকারের লক্ষ্য ২০২১ সাল নাগাদ বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২৪ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত করে দেশের প্রত্যেক ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দেয়া। তিনি দু’দেশের মধ্যে ‘গভমেন্ট টু গভমেন্ট’ সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশের সরকারি ও কূটনৈতিক পাসপোর্টের ক্ষেত্রে আরব আমিরাতে ভিসামুক্ত চলাচলের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান জানান।

এর জবাবে রাষ্ট্রদূত বলেন, আগামী ফেব্রুয়ারিতে দু’দেশের মধ্যে অনুষ্ঠেয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বিষয়টি আলোচনা করা হবে। এ সময় চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়াতে বিশেষায়িত হাসপাতাল করার ক্ষেত্রে সংযুক্ত আরব আমিরাতের যে প্রস্তাব ছিল তা পুনরুজ্জীবিত করারও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

সাঈদ বিন হাজার আল সেহি’র দায়িত্ব পালনকালে দু’দেশের সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্যও প্রধানমন্ত্রী তাকে ধন্যবাদ জানান।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৭:২৩ পি.এম