President

বাংলাদেশে ডায়াবেটিস রোগী কত—এ নিয়ে কোনো জরিপ, পরিসংখ্যান বা উদ্যোগ এখন পর্যন্ত নেওয়া হয়নি। জাতীয় পর্যায়ে এ বিষয়ক তথ্যভান্ডার বানাতে নতুন বছরের জানুয়ারি থেকে ডিজিটাল নিবন্ধন শুরু হবে, যা দেশে প্রথমবারের মতো হচ্ছে।

আজ রোববার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর রমনায় ঢাকা ক্লাবে এক সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে এসব কথা জানানো হয়। বাংলাদেশ ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (বাডাস) এই ডিজিটাল নিবন্ধনের পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে। এতে সহযোগিতা করবে ডেনমার্কভিত্তিক আন্তর্জাতিক ফার্মাসিউটিক্যাল প্রতিষ্ঠান নভো নরডিস্ক।

অনুষ্ঠানে বাডাসের সভাপতি একে আজাদ খান ও নভো নরডিস্কের পক্ষ থেকে সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফ্রেডরিক কিয়ার সমঝোতা স্বাক্ষর করেন।

এ কে আজাদ খান বলেন, ‘বাংলাদেশে ডায়াবেটিস রোগীর কোনো সঠিক সংখ্যা বা এ–সংক্রান্ত কোনো জরিপ নেই। দেশজুড়ে এই নিবন্ধনের মাধ্যমে শুধু রোগীর সংখ্যাই নয়, একটি সঠিক চিত্র পাওয়া যাবে বলে আমি মনে করি।’

অনুষ্ঠান থেকে বলা হয়, পৃথিবীব্যাপী ডায়াবেটিস রোগের নিয়ন্ত্রণে গত ৯০ বছর ধরে কাজ করছে নভো নরডিস্ক। ডিজিটাল নিবন্ধনের ফলে নিবন্ধিত ডায়াবেটিস রোগীদের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ ও পর্যালোচনার মাধ্যমে ডায়াবেটিস রোগীর জন্য গুণগত মান নিশ্চিত করা যাবে।

প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র প্রেসিডেন্ট ফ্রেডরিক কিয়ার অনুষ্ঠানে বলেন, বাংলাদেশে ডিজিটাল নিবন্ধনের ফলে রোগীদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সঠিক চিত্র তুলে ধরা যাবে। এতে করে সমস্যাগুলোকে পূর্ণ মনোযোগ দেওয়া যাবে; যা যেকোনো ধরনের ঝুঁকি মোকাবিলায় সহায়তা করবে।

নভো নরডিস্ক এসকেএফ ফার্মার সঙ্গে অংশীদারত্বের মাধ্যমে ২০১২ সাল থেকেই বাংলাদেশে ইনসুলিন তৈরি করে আসছে। এই ইনসুলিন ট্রান্সকম ডিস্ট্রিবিউশন দেশব্যাপী সরবরাহ করে। অনুষ্ঠানে ট্রান্সকম ডিস্ট্রিবিউশনের মহাব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বাডাসের মহাপরিচালক মো. সাইফুদ্দিন, নভো নরডিস্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনন্দ শেঠী, নভো নরডিস্ক বাংলাদেশের হেড অব মার্কেটিং মোহাম্মদ সাইফুল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৭:১৬ পি.এম