President

চিকিৎসা খরচ দিতে না পারলেও কোনো ক্লিনিক কিংবা হাসপাতালে রোগীর লাশ জিম্মি করে রাখা যাবে না বলে নির্দেশনা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এক্ষেত্রে রোগীর চিকিৎসা খরচ বহন করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে একটি তহবিল গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসাইন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রায়ে এ নির্দেশ দেন।

২০১২ সালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একটি নবজাতক মারা যায়।

কিন্তু তার পরিবার গরিব হওয়ায় চিকিৎসা খরচ ৪১ হাজারের মধ্যে ১৫ হাজার পরিশোধ করলেও বাকি টাকা দিতে ব্যর্থ হয়।

এ কারণে নবজাতকটির লাশ আটকে রাখে বেসরকারি সিটি হাসপাতাল।
এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে ওই বছরের ১০ জুন জনস্বার্থে তা আদালতের নজরে এনে রিট করে মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস পিচ ফর বাংলাদেশ (এচআরপিবি)।

ওই রিটটি গ্রহণ করে আদালত একই মাসের ১৪ তারিখে এ বিষয়ে রুল জারি করেন।

পাঁচ বছর পর সোমবার ওই রুল নিষ্পত্তি করে রায় দেন হাইকোর্ট।

রায়ে আদালত বলেন, চিকিৎসা বিল পরিশোধে ব্যর্থ হলে কোনো ক্লিনিক কিংবা হাসপাতাল লাশ জিম্মি করতে পারবে না।

গরিব রোগীদের অপরিশোধিত বিল প্রদানে স্বাস্থ্য সচিব ও ডিজি স্বাস্থ্যকে তহবিল গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়।

এ ছাড়া ডিজি স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্য সচিবকে একটি সার্কুলার জারি করে লাইসেন্সকৃত সব ক্লিনিক ও হাসপাতালে লাশ জিম্মি না করার বিষয়ে নির্দেশ দিতে বলেন আদালত।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

২০ নভেম্বর, ২০১৭ ১৫:১১ পি.এম