President

চামড়া ও চামড়াজাত শিল্পের আধুনিকায়ন এবং উন্নয়নে শুরু হয়েছে চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড় ট্রেড শোর পঞ্চম আসর ‘লেদারটেক বাংলাদেশ ২০১৭’। এতে চামড়াজাত পণ্য ও এসব পণ্য তৈরির যন্ত্রাংশ ও প্রযুক্তি প্রদর্শন করা হচ্ছে।

বৃস্পতিবার রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সিটিতে এই প্রদর্শন শুরু হয়। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চামড়া ও চামড়াজাতীয় পণ্য উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ, দুটি মূল প্রদর্শনী কেন্দ্র ছাড়াও আলাদা একটি স্থানে চামড়া জাতীয় পণ্য (বেল্ট, মানিব্যাগ, স্কুল ব্যাগ), পাদুকা, চামড়া জাতীয় পণ্য উৎপাদনে ব্যবহৃত রাসায়নিক পণ্য, সেলাই মেশিন ও এসব পণ্য উৎপাদনের বিভিন্ন যন্ত্রাংশের সমাহার ঘটেছে মেলায়। অর্থাৎ চামড়া শিল্পের সঙ্গে জড়িত সব পণ্যই প্রদর্শন করা হচ্ছে এখানে।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, অংশগ্রহণকারী প্যাভিলিয়নগুলোর একটি বড় অংশজুড়ে রয়েছে ভারত ও চীনের বিভিন্ন কোম্পানি। এছাড়া যুক্তরাজ্য, ইতালি, জার্মানি, সিঙ্গাপুর, জাপান, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, তুরস্ক, কোরিয়া, শ্রীলংকা ও হংকংয়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নিয়েছে। এতে পুরোনো বা নতুন—সব উদ্যোক্তারা বিদেশি পণ্য সম্পর্কে বিভিন্ন অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারবেন বলে আশা করছেন উদ্যোক্তারা।

প্রদর্শনীর দায়িত্বে থাকা আসক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিভিশন্স লিমিটেডের পরিচালক টিপু সুলতান ভূঁইয়া বলেন: দেশি-বিদেশি বিভন্ন প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নিয়েছে। চামড়া শিল্পের সঙ্গে জড়িত উদ্যোক্তারা এই মেলা থেকে বিভিন্ন ধারনা নিতে পারবেন।

তবে প্রদর্শনী ঘুরে দেখা গেছে, এখনও দর্শকের তেমন সাড়া নেই। অংশগ্রহণকারীরা বলছেন: প্রথমদিন দর্শক কম হলেও শুক্রবার ছুটির দিনে মেলা জমে উঠবে।

চীনা কোম্পানী সানশাইন সুজ ম্যাটেরিয়ালসের বিপণন কর্মকর্তা শরিফ হোসেন বলেন: আজ মেলার প্রথমদিন। তাই দর্শক কম। তবে শুক্রবার ছুটির দিনে অনেক দর্শক সমাগম হবে বলে আশা করছি।

ভারতীয় ভার্সেটাইল সুজ কোম্পানির বাংলাদেশ প্রতিনিধি কামাল হোসেন বলেন: গতবছরও এ মেলায় এসেছি। ভালো সাড়া পেয়েছি। আশা করি এবারও সাড়া পাব।

তবে উদ্বোধনের দিন দর্শক সমাগম কম হলেও শুক্রবার ছুটির দিনে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ভিড় বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

এবারের প্রদর্শনীতে ১৫টি দেশের ২৫০টি প্রতিষ্ঠান চামড়া, চামড়াজাত পণ্য ও ফুটওয়্যার শিল্প সংশ্লিষ্ট মেশিনারি, কম্পোনেন্ট, কেমিক্যাল ও অ্যাক্সেসরিজ প্রদর্শন করছে। প্রদর্শনীর প্রধান পৃষ্ঠপোষক লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারারস অ্যান্ড এক্সপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। আর কৌশলগত অংশীদার সেন্টার অব এক্সিল্যান্স ফর লেদার স্কিল বাংলাদেশ লিমিটেড।

এছাড়া অন্যান্য পৃষ্ঠপোষকদের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ টেনারস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ পাদুকা প্রস্তুতকারক সমিতি, কাউন্সিল ফর লেদার এক্সপোর্টস এবং ইন্ডিয়ান ফুটওয়্যার কম্পোনেন্টস ম্যানুফ্যাকচারারস অ্যাসোসিয়েশন।

প্রদর্শনী চলবে প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। সবার জন্য এ প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে। সূত্র- চ্যানেল আই অনলাইন

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:১১ এ.ম