President

ঈদে হয়তো অনেকেই দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন । যাঁরা অল্প খরচে দেশের বাইরে ঘুরে আসতে চান তাঁদের জন্য কলকাতা সম্ভবত সবচেয়ে উত্তম স্থান হতে পারে। সুতরাং একটু পরিকল্পনা করে আপনি ঘুরে আসতে পারেন কলকাতা থেকে। 

যা করতে হবে

কলকাতায় আপনি তিনভাবে যেতে পারেন সড়ক, রেল ও আকাশপথে। আপনাকে বাসে করে যেতে হলে শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টার থেকে সৌহার্দ্য বাসের টিকেট কেটে নিতে হবে। টিকেটের মূল্য জনপ্রতি এক হাজার ৭০০ টাকা। তবে কলকাতার টিকিট আপনি পাবেন কমলাপুর ও শ্যামলী থেকে। এরপর আপনার যদি ভিসা না থেকে থাকে তাহলে অনলাইনে ভিসা ফরম পূরণ করে নির্দেশনা অনুযায়ী কাগজপত্র ও টিকেটসহ ভিসা সেন্টারে জমা দিতে হবে। আর আপনার যদি ভিসা করা থাকে তাহলে তো কথাই নেই। তাহলে প্রয়োজনীয় জিনিস ও কাপড় নিয়ে আপনি রওনা দিতে পারেন কলকাতার উদ্দেশে ।

কলকাতায় কোথায় থাকবেন 

কলকাতাকে অনেকেই জাদুর শহর বলে থাকে। হয়তো বা দেশের বাইরেও বাঙালি আবহ এর কারণ হতে পারে। সারা কলকাতাই অনেক ভালোভালো থাকার ও খাবার হোটেল আছে তবে বেশির ভাগবাংলাদেশিই অবস্থান করেন নিউমার্কেট এবং এর আশপাশের এলাকার হোটেলগুলোতে। এখানে আপনি থাকার হোটেল পাবেন যার ভাড়া প্রতিদিন ১২০০-৫০০০ রুপি । হোটেলে রুম নেওয়ার আগে একটু দরদাম করে নিতে পারেন এতে কিছুটা হলেও কমে পেয়ে যেতে পারেন । 

কলকাতায় যা করবেন 

কলকাতায় কিছু যানবাহন চলে যা আমাদের দেশে দেখা যায় না যেমন ধরুন ট্রাম, এক ধরনের ট্যাক্সি এবং মেট্রো রেল। একটু ব্যতিক্রম অভিজ্ঞতার জন্য এগুলোতে চড়ে দেখতে পারেন। এ ছাড়া কলকাতার স্টিট ফুড অনেকের কাছে পছন্দের, চাইলে খেয়ে দেখতে পারে। যেমন পানিপুরি, সমুচা বাড়াপাউ ইত্যাদি । কলকাতায় গিয়ে মাটির পেয়ালাতে চা পান করতে ভুলবেন না কিন্তু ।

যা দেখবেন

কলকাতায় বেশ কিছু আকর্ষণীয় জায়গা রয়েছে যা আপনাকে অভিভূত করবে । সকাল সকাল বের হয়ে একটি ট্যাক্সি নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন জায়গাগুলো দেখতে ।

হাওড়াব্রিজ

হাওড়া ব্রিজ কলকাতার অন্যতম আকর্ষণ । হুগলি নদীর উপরে মনোরম এই ব্রিজটির মাঝে কোনো পিলার নেই। হাওড়া ব্রিজটি সবচেয়ে সুন্দরভাবে দেখা যায় মিলেনিয়াম পার্ক থেকে। পার্কটিতে কোনো প্রবেশ মূল্য নেই। মনে রাখবেন রাতে হাওড়া ব্রিজ দেখতে আরো সুন্দর কারণ রাতের আলোয় এর সৌন্দর্য আরো মনোরম। 

বিদ্যাসাগর সেতু

হুগলি নদীর ওপর নবনির্মিত এই সেতুটি দেখতে আরো সুন্দর। তবে সেতুটিকে আপনাকে দেখতে হলে গাড়িতে বসেই দেখতে হবে কিংবা দূর থেকে দেখতে হবে। সেতুটির উপরে গাড়ি থামাবার কিংবা হাটার অনুমতি নেই।

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল

কলকাতায় সবচেয়ে দর্শনীয় স্থানগুলোর নাম বলতে হলে প্রথমেই বলতে হবে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের কথা। সাদা মার্বেল পাথরে নির্মিত এই মহলটি রানি ভিক্টোরিয়ার স্মৃতি রক্ষার্থে নির্মাণ করা হয়। এটি একটি জাদুঘর । সোমবার ছাড়া বাকি ছয়দিন এর গ্যালারিগুলো খোলা থাকে। গ্যালারিগুলোতে আপনি ব্রিটিশদের শাসন আমলের অনেক নিদর্শন যেমন মুদ্রা, পেইন্টিং, অস্ত্র ইত্যাদি দেখতে পাবেন । মেমোরিয়ালটিতে বিদেশিদের প্রবেশমূল্য ২০০ রুপি। 

 সায়েন্স সিটি

নানা রকম বিজ্ঞান সম্মত অভিজ্ঞাতা অর্জন করতে ঘুরে আসতে পারেন সায়েন্স সিটি থেকে। এখানে রয়েছে থ্রি ডি শো, স্পেস ট্র্যাভেল শো এবং নানা বিজ্ঞানসম্মত বিনোদনের ব্যবস্থা। প্রবেশ মূল্য জনপ্রতি ৫০ টাকা তবে প্রতিটি শো দেখার জন্য আপনাকে আলাদা আলাদা টিকেট কিনতে হবে । আরো তথ্যের জন্য ভিজিট করুন : http://sciencecitykolkata.org.in/?page_id=893

বেলুর মঠ

কলকাতা থেকে মাত্র এক ঘণ্টার দূরত্ব । গঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত এই নিদর্শনটির কারুকার্য সত্যিই মুগ্ধকর । হুগলি জেলায় অবস্তিত এই নিদর্শনটি দেখতে সারা বছর পর্যটক এই স্থানটিতে ছুটে আসে ।

যা মনে রাখবেন 

১। পাসপোর্ট সঙ্গেই রাখুন । প্রয়োজনে পুলিশ চেক করতে পারে ।

২। কলকাতার মানুষ সহজেই বাংলাদেশিদের মুখে ভাষা শুনে বুঝতে পারে যে তারা বাংলাদেশ থেকে এসেছে সুতরাং আপনার সত্য পরিচয় দিন।

৩। শপিং করার জন্য আপনি নিউমার্কেট এবং এর আশপাশের এলাকাকেই বেছে নিতে পারেন ।

৪। যেসব স্থানে ছবি তোলা নিষেধ সেখানে ছবি তোলা থেকে বিরত থাকুন ।

৫। রাতে চাইলে কলকাতা শহর ঘুরেও দেখতে পারেন কিন্তু সাবধান । হোটেলের কাউকে বললে হয়তো বা তারাই বিশ্বস্ত কোনো ট্যাক্সির ব্যবস্থা করে দিতে পারে ।

৬। সবার সঙ্গে সুন্দর আচরণ করুন ।

০২ জুলাই, ২০১৭ ১৫:১৫ পি.এম