President

 

আজ শনিবার সন্ধ্যায় গুলশানের ইমানুয়েল সেন্টারে ২০-দলীয় জোটের শরিক দল জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) সভাপতি প্রয়াত শফিউল আলম প্রধানের শোকসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া এ কথা বলেন।

 

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ইঙ্গিত করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘নিজেরা হেলিকপ্টারে বিভিন্ন জায়গায় উদ্বোধনের নামে যাচ্ছেন, কিছু উদ্বোধন করছেন। আর সেখানে ওরা নির্বাচনী ক্যাম্পেইনের নামে নৌকার পক্ষে ভোট চাচ্ছেন। নৌকা যে ডুবে গেছে, এটা বুঝতে পারছেন না। এই নৌকা ডুবে গেছে, এই নৌকাকে আর আপনার হাজার লোক দিয়েও টেনে তুলতে পারবে না।’

 

বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, ‘নৌকার সঙ্গে যাঁদের রেখেছেন, আপনার আশপাশে, ডানে-বাঁয়ে যাঁরা আছেন, যাঁরা অন্য দল করে আপনার দলে এসেছেন—তাঁরা কী জিনিস। আপনি কিন্তু নিজেই বলে দিয়েছেন তাঁরা কী খায়, কী রকম তাঁদের লাইফ স্টাইল। এসব লোককে দিয়ে দেশের কিছু হবে না। এরা দেশের কিছু করতে পারে না। আপনিও পারবেন না।’

 

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি পুনর্ব্যক্ত করে খালেদা বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না, হতে দেওয়া হবে না। হাসিনাকে বাদ দিতেই হবে, ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতেই হবে। তিনি আরও বলেন, ভবিষ্যতে সহায়ক সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে প্রত্যেক ভোটার ভোট দিতে যাবে। সবাই এটা চায়, সারা পৃথিবীর মানুষ এটা চায়। ইনশাআল্লাহ, বাংলাদেশে এই নির্বাচন হবে।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সেই নির্বাচনের ফলাফল আপনারা বুঝতে পারবেন। ইনশাআল্লাহ, বিএনপি ও ২০-দলীয় জোট জিতে এসে আমরা ভিশন ২০৩০-এ যা যা ওয়াদা করেছি, সবকিছু করব। এর বাইরে আরও কিছু করার থাকলে সেটাও করব।’

একাদশ নির্বাচন প্রসঙ্গে খালেদা জিয়া বলেন, ‘সামনে নির্বাচন। আমি জনগণের উদ্দেশে বলতে চাই, আওয়ামী লীগের চেহারা আপনারা ভালোভাবে দেখে নিয়েছেন। তাদের হাত থেকে বাঁচতে চান, সকলে মিলে গণতন্ত্রের পক্ষে, দেশের শান্তি-উন্নয়ন এবং স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের পক্ষে থাকুন। সেই রকম দলই হলো বিএনপি ও ২০ দল। যাদের দেশপ্রেম আছে, প্রতিটি মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক আছে।’

১৭ জুন, ২০১৭ ১৮:৪০ পি.এম