President

আমি অসুস্থ নই, কারো সঙ্গে বিরোধও নেই। আমার ধারণা, সরকারকে ভুল বোঝানো হয়েছে। আমি সাময়িকভাবে যাচ্ছি। আবার ফিরে আসব। বললেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।

রাত ৯টা ৫৬ মিনিটে ঢাকার হেয়ার রোডের বাসা থেকে বেরিয়ে বিমানবন্দরের পথে গাড়িতে ওঠার আগে এসব কথা বলেন তিনি।
প্রধান বিচারপতি বলেন, আমাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়নি, ছুটি শেষে যথাসময়ে আবার দেশে ফিরে আসব।
শুক্রবার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ ৪৪৭ ফ্লাইটে দেশ ছেড়ে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।
বিমানবন্দর সূত্রে জানায়, রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ ৪৪৭ ফ্লাইটটি ঢাকা থেকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। সেই ফ্লাইটের টিকিট কেটেছেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।

অস্ট্রেলিয়ায় তার মেয়ে সুচনা সিনহার বাড়িতে উঠবেন তিনি ও তার স্ত্রী। তাদের তিন বছরের ভিসা দিয়েছে ঢাকার অস্ট্রেলিয়া দূতাবাস।
সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের ডিউটি ম্যানেজার মো. জুনায়েদ হোসেন জানান, ঢাকা থেকে রওনা হয়ে ফ্লাইট এসকিউ ৪৪৭ স্থানীয় সময় ভোর ৬টায় সিঙ্গাপুরে পৌঁছাবে। সেখানে ৪৫ মিনিট যাত্রাবিরতি করে রওনা হবে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ইসমাইল হোসেন দেখা করতে প্রধান বিচারপতির বাসভবনে প্রবেশ করেন। এরপরে সন্ধ্যা ৬টা ১৭ মিনিটে ওই বাসায় প্রবেশ করেন প্রধান বিচারপতির ব্যক্তিগত সহকারী আনিসুর রহমান।

বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) আইন মন্ত্রণালয় প্রধান বিচারপতির ছুটি সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করে।
আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক স্বাক্ষরিত এই আদেশে বলা হয়, প্রধান বিচারপতির আবেদনে এর আগে ৩ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত ৩০ দিনের ছুটি মঞ্জুর করেছিলেন রাষ্ট্রপতি।

কিন্তু বিচারপতি সিনহা যেহেতু আরও বেশি দিন বিদেশে থাকবেন, সেহেতু রাষ্ট্রপতি নতুন আদেশ দিয়েছেন।
২৫ দিনের অবকাশ শেষে ৩ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট খোলার দিনই অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে ১ নভেম্বর পর্যন্ত এক মাসের ছুটিতে যান সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। এ নিয়ে রাজনৈতিকমহল ও আইনজীবীদের মধ্যে আলোচনার ঝড় ওঠে।

প্রধান বিচারপতি সস্ত্রীক অস্ট্রেলিয়ায় পাঁচ বছরের ভিসার জন্য দূতাবাসে আবেদন করেছিলেন। তবে দূতাবাস তাদের তিন বছরের ভিসা দেয়।
এরপর মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) তিনি আইন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতিকে তার বিদেশ ভ্রমণের বিষয়টি চিঠি দিয়ে অবহিত করেন। ওই চিঠিতে আগামী ১৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়ায় থাকতে চান বলে উল্লেখ রয়েছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

 

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ২৩:৪২ পি.এম