President

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আজ সোমবার ইসরায়েল এবং কাল মঙ্গলবার ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড সফর করবেন। তিনি মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়া কীভাবে আবার শুরু করতে যাচ্ছেন, তা জানতে পর্যবেক্ষকেরা এই সফরের খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ করবেন।

 

ইসরায়েল রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠার প্রায় ৭০ বছর পরও ফিলিস্তিনিদের কাছে শান্তি এখনো অনেক দূরের পথ। ছয় দিনের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধ এবং ইসরায়েলি দখলদারির ৫০ বছর পূর্ণ হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার একটি উদ্যোগ ২০১৪ সালে মুখ থুবড়ে পড়ার পর এখনো এ বিষয়ে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। ২০০৮ সাল থেকে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস তিন দফা যুদ্ধ করেছে।

 

এখন পরিস্থিতির উন্নয়নে ট্রাম্পের কি কোনো পরিকল্পনা আছে? ইসরায়েলি-ফিলিস্তিনি বিরোধ নিরসনে তিনি নিজের ব্যবসায়িক দক্ষতা কাজে লাগানোর কথা আগে দু-একবার বলেছেন। তবে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর মাত্র চার মাসের মধ্যেই এ বিষয়ে বিশদ পরিকল্পনা জানাবেন, এমন আশা না করাই সংগত। বরং ট্রাম্প এখন দুই পক্ষকে আরও কাছাকাছি এনে আস্থা বৃদ্ধির চেষ্টা চালাতে পারেন, যদিও এ বিষয়ে বিস্তর সংশয় রয়েছে। ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রবিজ্ঞানী আলি আল-জারবাওয়ি বলেন, শান্তি প্রক্রিয়া শুরু করা মানেই তাকে শেষ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া নয়।

১৬ জুন, ২০১৭ ২০:১২ পি.এম