President

এক মাসের ছুটিতে থাকা প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহা ১৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত বিদেশে অবস্থান করতে চান। আইন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো চিঠিতে তিনি বিষয়টি উল্লেখ করেছেন।

প্রধান বিচারপতির বিদেশে যাওয়া সংক্রান্ত চিঠির প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক মঙ্গলবার রাত ১০টায় জাগো নিউজকে বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি দেশে কিংবা বিদেশে যেখানেই অবস্থান করুন না কেন, তিনি নিজের ছুটি নিজেই নেন। তার অবর্তমানে আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি আব্দুল ওয়াহহাব মিঞা দায়িত্বপালন করবেন।’

‘প্রধান বিচারপতি চিঠির মাধ্যমে অবহিত করেছেন যে, ১৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর তিনি বিদেশে অবস্থান করবেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।’

আইন মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, নিয়ম অনুযায়ী প্রধান বিচারপতিকে বিদেশ যেতে হলে সরকারি আদেশ (জিও) জারি করতে হবে। সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার মো. জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত একটি চিঠি মঙ্গলবার বিকেলে আইন মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে বলেও জানা যায়।

প্রধান বিচারপতির চিঠিতে বলা হয়েছে, তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ, মানসিকভাবেও অবসাদগ্রস্ত। এ কারণে বিশ্রামের জন্য ১৩ অক্টোবর বা তার কাছাকাছি সময়ে বিদেশ যেতে চান তিনি।

এদিকে প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়া নিয়ে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছেন সরকার সমর্থক ও বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা।

মঙ্গলবার দুপুর পৌনে ৩টার দিকে প্রধান বিচারপতির বাসায় যান তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি। তিনি প্রায় এক ঘণ্টা প্রধান বিচারপতির বাসায় অবস্থান করেন।

চিকিৎসক ছাড়াও এদিন বাসায় গিয়ে দেখা করেন প্রধান বিচারপতির একান্ত সচিব মো. আনিছুর রহমান। এছাড়া কয়েকজন আত্মীয়ও তার সঙ্গে দেখা করেন।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর পূর্ণাঙ্গ রায় নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েনের মধ্যে বিভিন্ন শারীরিক জটিলতার কথা বলে গত ৩ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত এক মাসের ছুটি নেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।

সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি দাবি করছে, প্রধান বিচারপতিকে জোরপূর্বক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।

এস কে সিনহা ছুটি নেয়ায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পেয়েছেন আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি আবদুল ওয়াহহাব মিঞা।

ইতোমধ্যে বিচারপতি সিনহা ও তার স্ত্রী সুষমা সিনহা তিন বছরের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পেয়েছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ করেছে। তারা শিগগিরই অস্ট্রেলিয়া যাবেন। সেখানে তাদের বড় মেয়ে সূচনা সিনহা বসবাস করেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

১১ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:০৩ এ.ম