President

মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে চলমান মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সাবেক ১৭জন বিশেষ দূত যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেছে। গতকাল সোমবার ( ৯ অক্টোবর) যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। এই বিবৃতিতে কানাডিয়ান সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল জাস্টিস (সিসিআইজে) একমত পোষণ করে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সাবেক ১৭জন বিশেষ দূতকে ধন্যবাদ জানান।

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নির্যাতন চলছেই। নিরীহ রোহিঙ্গাদের হত্যা, তাদের ঘরবাড়ি জালিয়ে দেওয়াসহ রাখাইন থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়নের কাজ অব্যাহত রেখেছে মিয়ানমার সেনা বাহিনী ।

যৌথ বিবৃতি তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, ৫ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে।

মিয়ানমারে বহু শতাব্দী ধরে বিশাল এলাকা জুড়ে রোহিঙ্গা সম্প্রদায় বসবাস করে আসছে। আমরাও গভীরভাবে উদ্বিগ্ন যে, রোহিঙ্গারা তাদের পূর্ব পুরুষের জমিগুলিতে বসবাসের সত্ত্বেও নাগরিকত্ব ও নাগরিকত্বের অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। নির্যাতনের কারণে রোহিঙ্গাদের মধ্যে নারী ও শিশুদের মধ্যে ব্যাপক প্রভাব পড়ছে। যার কারণে বাংলাদেশে অবস্থান নেয়া শরণার্থীদের মধ্যে নারী ও শিশুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

এই গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অপরাধীদের জবাবদিহিতা করা এবং বিচারের সম্মুখীন করা হয় তা নিশ্চিত করার জন্য আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা পরিষদের সময়ের দাবি হয়ে উঠেছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সাবেক বিশেষ দূত (শিশু ও নারী ট্র্যাফিকিং) সিগমা হুদা যৌথ বিবৃতি প্রকাশের বিষয়ে টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন।


টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

১০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:৪৫ পি.এম