President

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলা সদর ইউনিয়নের কবিরমামুদ গ্রামের ফুলবাড়ী টু বালারহাট যাতায়াতের পাকা সড়কটি বন্যায় ভেঙে গিয়ে যাতায়াতের চরম দুর্ভোগে ফেলেছে। বন্যার হওয়ার প্রায় ২ মাস অতিবাহিত হলেও প্রায় ৬০ ফুটের এই ভাঙা স্থানটি মেরামতে কার্যকরী পদক্ষেপ না নেয়ায় সড়কটি দিয়ে চলাচলকারী ৩ ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ পড়েছে চরম দুর্ভোগে। যাতায়াতকারী শিমুলবাড়ী জকুরটল এলাকার ব্যবসায়ী আব্দুল জলিল (৪২) জানান, ব্যস্ততম সড়কটির ভাঙা স্থানটি দিয়ে চলাচলে আমাদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। স্থানীয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আমাদের মতো লাখো মানুষের দুর্ভোগের বিষয়টি নজরে না নেয়ায় তিনি মর্মাহত। তিনি বলেন, আমাদের সবার দাবি দ্রুত সময়ে ভাঙা সড়কটি মেরামত করা হোক।


ঐ সড়কে যাতায়াতকারী বালারহাট এলাকার জান্নাতী বেগম (২৫), পুতুল বেগম (৩২) জানান, সড়কটি মেরামত না হওয়ায় প্রায় ২ মাস ধরে ফুলবাড়ী উপজেলা সদরে আসতে আমাদের কষ্ট ভোগ করতে হচ্ছে। তারা স্থানীয় জন প্রতিনিধিসহ উপজেলা প্রশাসনের কাছে সড়কটি মেরামত করার জোড় দাবি জানান।
স্থানীয় অটো রিকশা চালক আব্দুল মতিন (৪৫), আমিনুল ইসলাম (৪৬), রিকশা চালক হুলি চন্দ্র মোহন্ত (৫৬) জানান, বন্যায় ভাঙা সড়কটি মেরামত না হওয়ায় এই সড়ক দিয়ে আমরা সরাসরি রিকশা চালাতে পারছিনা। এতে করে আমাদের উপার্জন কমেছে। তারা দ্রুত সময়ে সড়কটির ভাঙা স্থানটি মেরামত করারর দাবি জানান।


এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জানান, ভাঙা সড়কটিতে যাতায়াতে জন্য আপাতত তিনি নিজের ব্যক্তিগত অর্থে বাঁশের সাকো নির্মাণ করেছেন। ভাঙা স্থানে মাটি ভরাটের জন্য স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ কর্তৃক প্রকল্প সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠিয়েছে। তা অনুমোদন হলে সড়কটি মেরামতের কাজ হবে।
এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী উপজেলার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের প্রকৌশলী শামছুল আরেফিন খাঁন জানান, ভাঙ্গা সড়কটি মেরামতে প্রকল্প তৈরি করে পাঠানো হয়েছে। প্রকল্প পাশ হলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে তা মেরামত করা হবে।


টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

০৯ অক্টোবর, ২০১৭ ২৩:৪৬ পি.এম