President

গৃহস্থালি প্লাস্টিক পণ্যের সর্ববৃহৎ রিটেইল চেইনশপ ‘আরএফএল বেস্ট বাই’-এর ১৭২টি শোরুম এখন ঢাকাসহ দেশের ২৬টি জেলায় চালু রয়েছে। আগামী বছর নাগাদ শোরুমের সংখ্যা ৩০০ ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন চেইন শপটির চিফ ইনচার্জ রাহাত জাহান শামীম।

রাহাত জাহান শামীম জানান, আরএফএলের সব পণ্য যাতে একই ছাদের নিচে পাওয়া যায় সে লক্ষ্যে ২০১১ সালের অক্টোবরে বেস্ট বাইয়ের যাত্রা শুরু হয়। ক্রেতাদের চাহিদা সাপেক্ষে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে আরএফএল বেস্ট বাই। এ ছাড়া নতুন নতুন পণ্য যুক্ত হচ্ছে জনপ্রিয় এই চেইনশপে। সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে কসমেটিকস, ফুটওয়্যার ও মোবাইল এক্সেসরিজ। সব মিলিয়ে বেস্ট বাইয়ে মিলছে তিন হাজারের বেশি পণ্য।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানানো হয়েছে।

বেস্ট বাইয়ের ব্র্যান্ড ম্যানেজার দেওয়ান মো. মেহেদী হাসান বলেন, ক্রেতারা চাইলে ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে পণ্যের দাম পরিশোধ করতে পারেন। তা ছাড়া ১৬টি নির্দিষ্ট ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডধারীরা শূন্য শতাংশ সুদে তিন মাসে এবং সুদসহ ১২ মাসের কিস্তিতে পণ্যের মূল্য পরিশোধ করতে পারেন।

 

মেহেদী হাসান জানান, খুব শিগগিরই বেস্ট বাই ক্রেতাদের জন্য মেম্বারশিপ সুবিধা চালু করতে যাচ্ছে। এর ফলে ক্রেতারা পণ্য কেনাকাটায় নানা ধরনের সুবিধা ও ছাড় পাবেন। এ ছাড়া ক্রেতারা অনলাইনেও পণ্যের অর্ডার করতে পারবেন।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক (বিপণন) কামরুজ্জামান কামাল জানান, পণ্যের বৈচিত্র্যে ও গুনগত মানের কারণে মাত্র ছয় বছরে ক্রেতাদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে চেইন শপটি। দেশের সব মানুষ যাতে আরএফএলের পণ্য সহজে ও সাশ্রয়ী দামে কিনতে পারেন সে লক্ষ্যে অচিরেই সব জেলায় ও পর্যায়ক্রমে উপজেলাগুলোতে বেস্ট বাইয়ের শোরুম চালু করা হবে।

বেস্ট বাইয়ের শোরুমগুলো প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

০৭ অক্টোবর, ২০১৭ ১৭:০৮ পি.এম