President

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার এক মাসের ছুটির ঘটনায় সরকার বিচার বিভাগের 'ভাবমূর্তি নস্যাৎ' করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক মুভমেন্টের উদ্যোগে 'চলমান সংকটের সমাধান কোন পথে' শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি দেশের বিচার বিভাগের প্রতীক। বিচার বিভাগের স্বাধীনতার প্রতিনিধিত্ব করেন প্রধান বিচারপতি। বর্তমান সরকার তার বেহাল অবস্থা করেছে।

তিনি বলেন, গুটি কয়েক মানুষ ছাড়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য এমন কোনো মানুষ নাই যারা ত্যাগ স্বীকার করে নাই। দেশের সকল শ্রেণির মানুষ— কৃষক, শ্রমিক, ছাত্র-জনতা সবাই ত্যাগ স্বীকার করেছেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, 'আজকে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে বর্তমান সরকারের নালিশের অন্যতম কারণ হচ্ছে, প্রধান বিচারপতি বলেছেন— বাংলাদেশের স্বাধীনতা একজনের জন্য হয় নাই, সকলের জন্য হয়েছে। এটা কী মিথ্যা কথা বলেছেন? এই কথাটা বলাতেই প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে সরকারের এতো বিদ্বেষ ও ক্ষোভ।'

রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মিয়ারমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর অভিযানে গণহত্যায় পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর জন্য জয়েন্ট ওয়ার্কি গ্রুপ করে কোনো লাভ হবে না। জাতিসংঘকে সরাসরি এখানে জড়িত করতে হবে এবং জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে মিয়ানমারের সঙ্গে সমঝোতায় এসে এই নিরীহ রোহিঙ্গাদের তাদের নিজের দেশে পাঠিয়ে দিতে হবে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, 'আমরা একটা মানবিক জাতি। যারা এসে গেছেন তাদের দেখাশুনা করতে হবে, তাদের সেবা করতে হবে, তাদের ন্যূনতম সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে তাদের ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। মিয়ানমার সরকারের ওপর জাতিসংঘের মাধ্যমে চাপ সৃষ্টি করতে হবে, রোহিঙ্গাদের আসাটাও অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। তা না হলে আমাদের দেশের অর্থনীতির ওপরে চাপ আসবে, আমাদের সামাজিক ক্ষেত্রে নানা রকমের নৈরাজ্য সৃষ্টি হবে।'

এ প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার মওদুদ আরও বলেন, রোহিঙ্গা সংকট জাতীয় সমস্যা। এটা কোনো দলীয় সংকট নয়। একে হালকাভাবে নিলে চলবে না। এই সংকট সমাধানে সরকারের কূটনৈতিক তৎপরতা ব্যর্থ হয়েছে। এই সংকটের সময় জাতীয় ঐক্য সৃষ্টির জন্য সরকারের উদ্যোগ গ্রহণ করা উচিত। কারণ জাতীয় ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সেলিম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, কেন্দ্রীয় নেতা খালেদা ইয়াসমীন, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, নিপুণ রায় চৌধুরী, শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা প্রমুখ।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

০৬ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:৩৭ পি.এম