President

 রাজশাহী নগরীর শিরোইল কলোনির অর্ধশত বাড়িতে হামলা চালিয়েছে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা। গতকাল রবিবার রাতে শিরোইল কলোনির তিন নম্বর গলিতে সন্ত্রাসীরা দেশীয় ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে এলাকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায়।

এ সময় আহত হন কমপক্ষে ২৫ জন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সেলিম (৮) নামে এক শিশুকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, শিরোইল কলোনির তিন নম্বর গলির মনিরের ছেলে শুভর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী হাজরাপুকুরের কয়েকজনের বিরোধ চলছিল। এ বিরোধের জের ধরে রবিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে হাজরাপুকুর এলাকার সাব্বির, রাহুল, হৃদয়, সনি ও মোমিনের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন মুখোশধারী ধারালো অস্ত্র নিয়ে তিন নম্বর গলিতে প্রবেশ করে। তারা কলোনিতে ঢুকেই বাড়িঘরে এলোপাতাড়ি ভাঙচুর শুরু করে। এ সময় প্রায় আধাঘণ্টাব্যাপী তাণ্ডব চালিয়ে অর্ধশতাধিক বাড়ির জিনিসপত্র ভাঙচুর করে।

তারা আরো জানান, সন্ত্রাসীরা নারী ও শিশুদেরও নানাভাবে নির্যাতন করেছে। সন্ত্রাসীরা সেলিম নামে ৮ বছরের এক শিশুকে লাঠিপেটা করলে সে জ্ঞান হারায়। রাত ১০টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ প্রসঙ্গে এলাকার বাসিন্দা রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুল হক সুমন জানান, মুখোশধারীরা আমার বাড়ির মিটার ও গ্রিল ভাঙচুর করেছে। এলাকার ২৫ বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে। ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসীরা আধাঘণ্টা ধরে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি আমান উল্লাহ জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ইতিমধ্যে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। তাদের আটকের জন্য অভিযান শুরু হয়েছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৯:৩৫ এ.ম