President

মঙ্গলগ্রহে এক আদি সভ্যতা আছে যার নাম মার্টিয়ান সভ্যতা। সেই সভ্যতা নাকি ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল আর এক ভিনগ্রহের বাসিন্দাদের নিউক্লিয়ার আক্রমণে।
এমনটাই দাবি করছেন মার্কিন এক পদার্থবিজ্ঞানী।

মঙ্গলের বুক থেকে মুছে গিয়েছিল মার্টিয়ান সভ্যতার নাম। মার্টিয়ার সভ্যতার প্রাণি, যাদের নাম ইউটোপিয়ানস ও সিডোনিয়ানস বলে দাবি করেছেন বৈজ্ঞানিকরা। তারা সেই নিউক্লিয়ার আক্রমণে ধ্বংস হয়ে যায়। তাদের জিনোসাইডের নিদর্শন নাকি আজও মিলবে মঙ্গলের বুকে।

নিজেদের বক্তব্যের সমর্থনে কয়েক বছর আগের এক তথ্য তুলে ধরছেন বৈজ্ঞানিকরা। সে বছর মঙ্গলের বুকে এক থার্মোনিউক্লিয়ার বিস্ফোরণের চিহ্ন দেখা যায়। এখন মার্কিন পদার্থবিদদের দাবি, সেই নিউক্লিয়ার বিস্ফোরণ মোটেও প্রাকৃতিক নয়, বরং রীতিমত সামরিক পরিকল্পনামাফিক ঘটানো হয়েছিল। এখন মঙ্গলের মাটিতে ইউরেনিয়াম মেলায় সেই তথ্য আরও জোরদার হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন, একসময় মঙ্গলে পৃথিবীর মতই আবহাওয়া ছিল। প্রাণি ও উদ্ভিদও ছিল লালগ্রহের মাটিতে। আর এখানেই বেঁধেছে বিপত্তি। মঙ্গলে এখন কোনও সভ্যতার অস্তিত্ব টিকে থাকলে তারা পাল্টা পৃথিবীর বুকে নিউক্লিয়ার আঘাত হানতে পারে। মঙ্গলে নানান অভিযান থেকে তারা পৃথিবী সম্পর্কে নানান খুঁটিনাটি তথ্য সংগ্রহ করছে। যদিও এই আশঙ্কা এখনও হাইপোথিসিসের পর্যায়ে রয়েছে বলেই দাবি মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানীদের।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর/এইচ কে

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৯:৩২ পি.এম