President

মিয়ানমারের আরকান রাজ্যে চলা সহিংসতায় জীবন নিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে ঢুকছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আর্তনাদে ভারী হয়ে উঠেছে সীমান্তের বাতাস।

কেউ বৃদ্ধ বাবাকে নিয়ে এসেছেন, কেউ কাঁধে করে নিয়ে এসেছেন প্রতিবন্ধী বোনকে। কিন্তু এরই মাঝে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে নজির গড়লেন এক রোহিঙ্গা।
তিনি আকিয়াবের মো. আয়ুব (২৫)। তবে তিনি একা আসেন নি। নিজ কাঁধে বয়ে নিয়ে এসেছেন গর্ভধারিণী মা ও জন্মদাতা বাবাকে। পাহাড়, জঙ্গল, ঝোঁপঝাঁড় পেরিয়ে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপির চোখ ফাঁকি দিয়ে ৫ দিন ধরে বৃদ্ধ মা-বাবাকে কাঁধে নিয়ে উলুবনিয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেন তিনি।

বয়সের কারণে ৮০ বছরের বৃদ্ধ পিতা দুলু মিয়া খুব একটা হাঁটতে পারেন না আর ৬৫ বছরের বৃদ্ধ মা আছিয়া খাতুন অসুস্থ। তাই ছেলে আয়ুব ৫ দিন ধরে মা-বাবাকে কাঁধে নিয়ে বয়ে বেড়িয়েছেন সীমান্তের বিভিন্ন অঞ্চল। সীমান্তের গহীন জঙ্গল আর পাহাড়ে রাত কেটেছে তাদের। মিয়ানমার থেকে সাথে আনা সামান্য শুকনো খাবার বৃদ্ধ মা-বাবাকে খাইয়েছেন। দু’দিনের মাথায় ফুরিয়ে গেছে সংরক্ষিত খাদ্য। ক্ষুধার পীড়া সইতে না পেরে শুধু চোখের জল ঝরিয়েছেন তারা। সৃষ্টিকর্তার অসীম কৃপায় সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করলে কিছু লোক তাদের খাদ্য ও টাকা পয়সা দিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বলে জানান আয়ুব।

আয়ুব জানান, ‘অনেক কষ্ট ও ক্ষুধার যন্ত্রণা সহ্য করে ৫ দিন ধরে মা-বাবাকে কাঁধে বয়ে মায়ানমার থেকে বাংলাদেশ ঢুকেছেন তিনি। মিয়ানমার বাহিনী যখন একের পর এক গ্রাম পেট্টোল দিয়ে জ্বালিয়ে দিচ্ছিল, তখন তিনি মা-বাবাকে কাঁধে করে নিয়ে পালাতে থাকেন, ৫ দিন ধরে বিভিন্ন জঙ্গল পেরিয়ে অবশেষে উলুবনিয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেন। বিডি প্রতিদিন

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১২:০০ পি.এম