‘হাওরে দুর্ভিক্ষের পদধ্বনি শুনতে পাওয়া যায়’ মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘গত দুই দিন আগে সরকারের খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেছেন, চালের মূল্য বৃদ্ধির জন্য অসাধু মজুদদার ব্যবসায়ী ও মিল মালিকরা দায়ী। তিনি বিএনপিকে দোষারোপ করে বলেছেন, চালের বাজার অস্থিতিশীল করার পেছনে বিএনপি কলকাঠি নাড়ছে। আমি কামরুল ইসলাম সাহেবের উদ্দেশে বলতে চাই, হাওর অঞ্চলে তিনি ফসলহানি নিয়ে ডাহা মিথ্যাচার করেছেন। হাওর এলাকার প্রায় সম্পূর্ণ ফসল বিনষ্ট হয়েছে। এখন হাওরে দুর্ভিক্ষ ।

আজ  বৃহস্পতিবার (১৮ মে) দুপুরে নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন ।

রিজভী বলেন, ‘আজ মিথ্যা মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী বরকত উল্লাহ বুলু আদালতে আত্মসমর্পণ করতে গেলে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এটি সরকারের প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির আরেকটি বর্ধিত প্রকাশ। বিএনপির পক্ষ থেকে আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘গতকাল প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সরকারপ্রধান যে বক্তব্য রেখেছেন সেখানে কিছুটা সত্য উপলব্ধি থাকলেও বেশির ভাগই হচ্ছে তার স্বভাবসুলভ এবং অনর্গল মিথ্যাচারের পুনরাবৃত্তি। আমি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলতে চাই, যারা আপনার বাবার রক্ত ডিঙিয়ে শপথ নিয়েছেন এবং সেই শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছেন তারা ১৯৮১ সালের ১৭ মে থেকে কী করে আপনার অধীনে রাজনীতি করলেন, এমপি হলেন, মন্ত্রী ও উপদেষ্টা হলেন কিংবা গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেন? আমরা জানি, আপনার বাবার মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে অভিযুক্তদের ব্যাপারে আপনি ক্ষমাহীন। তাহলে এখনো কী করে আপনি এইচ টি ইমামকে সহ্য করছেন এবং মন্ত্রীর পদমর্যাদায় আপনার উপদেষ্টা বানিয়েছেন?’

‘গত চার মাসে দেশব্যাপী দেড় হাজার নারী-শিশু হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে’ উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘এটি বহির্বিশ্বে আমাদের ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ন করেছে। কটুভাষী ও গণতন্ত্রবিদ্বেষী সরকার আছে বলেই দেশব্যাপী ভয়াবহ অনাচারে চরম সামাজিক অবক্ষয় ঘটে চলেছে। ‘

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর/এইচ কে/ ১৮ মে ২০১৭