কিশোরগঞ্জ, সিলেট, শেরপুর ও গাইবান্ধায় বজ্রপাতে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন মোট ৪ জন। বুধবার বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

কিশোরগঞ্জের তিনটি হাওর উপজেলায় বুধবার সন্ধ্যার পর পৃথক বজ্রপাতে এক নারীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরও ২ জন। স্থানীয়রা জানায় হাওরে ধান কাটতে গিয়ে এসব বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, মিঠামইন উপজেলার ঢাকী ইউনিয়নের নতুনহাটি গ্রামের সুরমা খাতুন, তাড়াইলা ধলা ইউনিয়নের আনোয়ারপুর গ্রামের মানিক মিয়া ও অষ্টগ্রাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের কারবালাহাটি গ্রামের রিফাত মিয়া।

এদিকে সিলেটের ওসমানী নগরের মুক্তারপুর হাওরে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতে সুরুজ আলী (৩৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় একই গ্রামের মুজাহিদ আলী ও ওয়াকিল মিয়া আহত হন।

বুধবার বিকেলে কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। মৃত সুরুজ আলী উপজেলার পূর্ব তিলাপারা গ্রামের মৃত আপ্তাব আলীর ছেলে।

অপরদিকে শেরপুরের ঝিনাইগাতীর গান্ধিগাঁও এলাকায় বজ্রপাতে কৃষক আজিজুল হকের (৬৫) মৃত্যু হয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মৃত আজিজুল হক (৬৫) ওই গ্রামের লস্কর আলীর ছেলে।

এছাড়া গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে বজ্রপাতে রাহেলা বেগম (২৯) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের কামারেরভিটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাহেলা বেগম ওই গ্রামের সামিউল।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/নীরব/কামরুল/ ২০ এপ্রিল ২০১৭