লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. রাসেল ওরফে কালা রাসেল নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ২টার দিকে উপজেলার দত্তপাড়া চাটখিল সীমান্তবর্তী এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধ হয়। রাসেল নোয়াখালীর চাটখিলের চয়ানী টকবা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন উত্তর জয়পুর গ্রামের কবিরাজ বাড়ির একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে একটি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড গুলি ও ১১পিস ইয়াবাসহ রাসেল এবং বাবলু নামে দু’জনকে আটক করে পুলিশ। আটক বাবলু সদর উপজেলার উত্তর জয়পুর গ্রামের নুরুল আমিনের ছেলে।

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি মোক্তার হোসেন জানান, আটক রাসেলকে নিয়ে তার দেয়া তথ্যে দত্তপাড়া চাটখিলে রাতে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে রাসেলের সহযোগীরা।

এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এরই ফাঁকে রাসেল পালাতে গেলে সহযোগীদের গুলিতে মারা যান। তার লাশ উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি এলজি ও দুই রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। রাসেলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও ডাকাতিসহ ২০টি মামলা রয়েছে বলে জানান ওসি মোক্তার হোসেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এস আর/আইচ কে/ ১৯ মে ২০১৭