বরফ ব্যবহার করার কথা মর্গে মৃতদেহ সংরক্ষণের জন্য, কিন্তু তা সাবলীলভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে শরবতে৷ গরমে গলা ভেজাতে নিশ্চিন্তে সেই ঠান্ডা পানীয়ে চুমুক দিচ্ছেন সাধারণ মানুষ৷ কলকাতায় এই ভয়ঙ্কর বাস্তব হাতেনাতে ধরেছেন পুরসভার মেয়র পারিষদ (স্বাস্থ্য) অতীন ঘোষ৷

গতকাল বুধবার কলকাতার নিউ মার্কেট চত্বরে একাধিক বিক্রেতার কাছে গিয়েছিলেন তিনি৷ তাতেই এ সব জানা যায়৷ অন্তত ১০টি দোকানের বিরুদ্ধে পুরসভা মামলা করবে৷ কঠোরতম শাস্তি হতে পারে অভিযুক্তদের৷

পরিদর্শন শেষে অতীন বলেন, যে কোনও ধরনের বরফের চাঁই বা ইন্ডাস্ট্রিয়াল বরফ মানুষের খাওয়ার যোগ্য নয়৷ এই বরফ মৃতদেহ এবং পচনশীল বস্ত্ত সংরক্ষণের জন্য ব্যবহার করা হয়৷

এখানেই শেষ নয়৷ এই সব বরফ কোথা থেকে কেনা হয়, তা জানলে পিলে চমকে উঠবে৷ তিনি জানান, শহর বা শহরতলির মর্গের সামনে থেকে অত্যন্ত কম দামে এই বরফ কেনেন বরফ বিক্রেতারা৷ তার পরে সেই বরফ শহরের বিভিন্ন প্রান্তের প্রায় ৮০ হাজার খাবারের দোকানদার কিনে নিয়ে যান তাদের কাছ থেকে।

অতীন আরও জানান, আমাদের অভিযানের অন্যতম উদ্দেশ্য এই বরফ সরবরাহকারীদের খুঁজে বের করা৷ সংরক্ষণ করার বরফ কখনোই বিশুদ্ধ পানীয় জল দিয়ে তৈরি হয় না৷ এই বরফ বানাতে নিম্নমানের জল ব্যবহার করা হয়৷ একমাত্র আইস কিউব মানুষের খাবার যোগ্য৷ কিন্তু আইস কিউবের দাম যেহেতু বেশি, দোকানদাররা ইন্ডাস্ট্রিয়াল বরফই ব্যবহার করেন৷ সূত্র: এই সময়।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/হায়াত/কামরুল/নীরব/২০ এপ্রিল, ২০১৭