শান্তনু ভট্টাচার্য(শর্মা),আগরতলা,ভারত: আসাম তথা উত্তরপূর্ব ভারত সহ গ্রামবাংলার সংস্কৃতির শেকড় লোকসঙ্গীতকে বিশ্বের দরবারে এক অনন্য ভূমিকায় তুলে ধরার কারিগর ছিলেন লোকসঙ্গীত গবেষক–শিল্পী কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্য । তিনি সমগ্র বাংলার পল্লীগান ও লোকগানের ঐতিহ্যকে এক নবজাগরণের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে আজকের জনপ্রিয় বাংলাব্যান্ড “ দোঁহার “ কে সুপ্রতিষ্ঠিত করেন । বিশিষ্ট এই বাঙালী লোকশিল্পীর জন্ম আসামের শিলচরে ।

গত ৭ মার্চ ২০১৭ তে এক আকস্মিক পথদুর্ঘটনায় তিনি প্রয়াত হন । তাঁর এই অকালপ্রয়াণে সঙ্গীতজগতের অপূরণীয় ক্ষতি হয় । তাঁরই স্মৃতিতে গত ৩০ এপ্রিল আগরতলার রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে একটি ব্যতিক্রমী সন্ধ্যার আয়োজন করে “ উড়ান “ সাংস্কৃতিক সংস্থা । সংস্থার প্রধান দুই সংগঠক ও রাজ্যের বিশিষ্ট সাংবাদিক শুভ্রজিত ভট্টাচার্য এবং বিপুল ভৌমিকের সুনিপুণ পরিচালনায় দর্শকদের মন ছুঁয়ে যায় গোটা অনুষ্ঠান । অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন ত্রিপুরা রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার মহোদয় । তিনি তার বক্তব্যে কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে তাঁর জীবনের বিশেষ দিকগুলি তুলে ধরেন ।

vobon_maji_2

এই স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে আয়োজকদের বিশেষ উদ্যোগে কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যের সঙ্গীত পরিচালনায় নির্মিত বাংলাদেশের সিনেমা ‘ভুবন মাঝি’র ভারতবর্ষে প্রথম প্রদর্শন হিসেবে দেখার গৌরব অর্জন করেন আগরতলাবাসী । অত্যন্ত শৈল্পিক নিপুণতায় গঠিত সার্বিকভাবে মন ছুঁয়ে যাওয়া ছবিটি হলে উপস্থিত দর্শকদের হৃদয়ে পরিপূর্ণভাবে স্থান করে নিতে সক্ষম হয় । সিনেমাটির সঙ্গীত এবং আবহের মাধুর্যতা এতটাই শ্রুতিমধুর ছিল যা জনপ্রিয় লোকসঙ্গীত শিল্পী কালিকাপ্রসাদের স্মৃতিকে চিরকালের জন্য অমর করে রাখবে । বিশেষভাবে এখানে উল্লেখ করতে হয় আবহের কোলাজে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীতের ব্যবহার যা মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নির্মিত ‘ভুবন মাঝি‘ সিনেমাটিকে এক অন্যমাত্রায় নিয়ে যায় । ছবিটিকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ থেকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক মুন্নি সাহা , ‘ভুবন মাঝি’ সিনেমার পরিচালক ফাখরুল আরেফীন খান , প্রধান অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষ , সহ অভিনেতা মাজনুন মিজান , অভিনেতা শুভাশিস ভৌমিক , বিশিষ্ট বাচিকশিল্পী ও সংগঠক হাসান আরিফ এবং ভারতবর্ষের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ও কালিকাপ্রসাদের নিকটজন শুভপ্রসাদ নন্দী মজুমদার সহ প্রমুখরা ।

vobon_maji_1

এছাড়াও সাংস্কৃতিক পর্বে নিজেদের অনবদ্য পরিবেশনায় দর্শকদের মন জয় করে নেন ত্রিপুরা রাজ্যের বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী অমর ঘোষ ও দল , বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী সর্বাণী নন্দী ও দল , বিশিষ্ট রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী উপমা দাশ ব্রহ্ম ও দল , সুমন বনিক,রাহুল ও দল সহ আরও অনেকে । অনুষ্ঠানটিকে সার্বিক সফলতায় ভরিয়ে তোলার জন্য আয়োজক কমিটির তরফ থেকে সবাইকে ধন্যবাদজ্ঞাপন করা হয় । গোটা অনুষ্ঠানে উপস্থিতির হার লক্ষণীয় ছিল ।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ আর/এইচ কে/আই এস/৬ মে ২০১৭