সনজিত কর্মকার, চুয়াডাঙ্গা : গতবারের চেয়েও এবার চুয়াডাঙ্গায় ভুট্টার আবাদ লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করেছে। দেশের সর্বাধিক ভুট্টা আবাদের রেকর্ড গড়তে যাচ্ছে চুয়াডাঙ্গা জেলা।

ভুট্টার আবাদ অন্য আবাদের চেয়ে ঝুঁকি কম লাভ বেশি বলেই কৃষকদের অধিকাংশই এ চাষের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে চুয়াডাঙ্গায় প্রতিবছরেই বেড়ে চলেছে ভুট্টার আবাদ।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরসূত্রে জানা গেছে, গতবছর ভুট্টা আবাদের মূল মরসুমে চুয়াডাঙ্গার ৪টি উপজেলায় ৪৮ হাজার ৪৩০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার আবাদ করা হয়। সে হিসেবে এবারও গতবারের আবাদের পরিমাণকেই লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়।

অবাক হলেও সত্য যে, এবারও গতবারের চেয়ে চুয়াডাঙ্গায় বেশি ভুট্টার আবাদ করেছেন কৃষকেরা। কৃষি সমপ্রসারণ অধিদফতরের মাঠপর্যায়ে কর্মরতদের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছে। চুয়াডাঙ্গায় এবার ভুট্টার আবাদ হয়েছে ৪৮ হাজার ৯৫০ হেক্টোর জমিতে। গতবার ৪৮ হাজার ৪৩০ হেক্টরেই যখন দেশের সর্বাধিক ভুট্টার আবাদকারী জেলা হিসেবে চুয়াডাঙ্গা উঠে আসে আলোচনায়, এবারও তেমনটিই হতে যাচ্ছে বলে মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।

চুয়াডাঙ্গা জেলার ৪টি উপজেলার মধ্যে আলমডাঙ্গা উপজেলায় এবার কিছুটা কমলেও বেড়েছে বাকি ৩ উপজেলায়। গতবার আলমডাঙ্গায় ভুট্টার আবাদ হয়েছিলো ১২ হাজার ৮৬০ হেক্টোর জমিতে, এবার হয়েছে ১২ হাজার ৩ হেক্টর জমিতে। জীবননগরে গতবার ছিলো ৬ হাজার ৫শ এবার ৭ হাজার ছড়িয়ে গেছে। দামুড়হুদা উপজেলায় গতবার ১৪ হাজার ১৮০ হেক্টরে আবাদ করা হলেও এবার তা বেড়ে ১৫ হাজার ৫০ হেক্টোর ছুঁয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় গতবার ১৪ হাজার ৮৯০ হেক্টর আবাদ হলেও এবার হয়েছে ১৪ হাজার ৯শ হেক্টর জমিতে।

ভুট্টাচাষীরা বলেন, ভুট্টার আবাদে ঝুঁকি কম। যেমন গমের আবাদে গতবার ফলন বিপর্যয়ে পড়তে হয়। গুনতে হয় লোকসান। ভুট্টায় তেমন ঝুঁকি নেই। তুলনামূলক লাভ বেশি। বিক্রি করতে গিয়েও ঝামেলায় পড়তে হয় না। নগদ টাকায় বিক্রি। তাছাড়া এবার চুয়াডাঙ্গায় গমের আবাদ না করার জন্য কৃষি বিভাগ আহ্বান জানিয়েছে। ফলে, গমের বদলে ভুট্টার দিকেই ঝুঁকেছে বলেই গতবারের রেকর্ড ভেঙে চুয়াডাঙ্গার ভুট্টাচাষিরা এবারও গড়তে বসেছে নতুন রেকর্ড।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আই/নীরব/এস আর/২১ ডিসেম্বর,২০১৬