উপজেলার পরমেশ্বর্দী ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় আ’লীগের দুই গ্র“পের হামলা পাল্টা হামলায় অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি ভাংচুর লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় পুলিশসহ আহত হয়েছে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন। সংঘর্ষ থামাতে থানা পুলিশ কয়েক রাউন্ড শটগানের গুলি বর্ষণ করে। ঘটনাস্থল থেকে আনুমানিক ৫জনকে আটক করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার (২১.০৪.১৭) সকালে ওই ইউনিয়নের আরাজি শ্রীনগর গ্রামে কয়েক দফা এ পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মোস্তফা কামাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, পরমেশ্বর্দী  ইউনিয়ন আ’লীগের সহসভাপতি মান্নান মাতুব্বরের সাথে মোটরদিয়া গ্রামের নব্য আ’লীগ নেতা সুজন সরদারের সাথে ময়েনদিয়া হাটে মাছ বাজারের টোল আদায় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ ঘটনার জের ধরে সুজন সরদারের পক্ষের নাজমুল ও রবিউলসহ ৮/১০জন বৃহস্পতিবার রাতে মান্নান গ্র“পের আরাজি শ্রীনগর গ্রামের নিজাম খাকে বাড়ি যাওয়ার পথে মারধর করে। এর প্রতিশোধ নিতে পরের দিন শুক্রবার সকালে মান্নান মাতুব্বর দেশীয় অস্ত্রসজ্জীত লোকজন নিয়ে ময়েনদিয়া বাজারে জড়ো হয়। খবর পেয়ে সুজন সরদার পাশের দাদপুর গ্রাম ও সালথা উপজেলার নটখোলা গ্রাম থেকে দেশীয় অস্ত্রসজ্জীত ৪/৫শত লোক নিয়ে ময়েনদিয়ার দিকে এগিয়ে আসলে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। এক পর্যায় সুজন সরদার লোকজন নিয়ে আরাজি শ্রীনগর গ্রামে মান্নান মাতুব্বর সমর্থক আনুমানিক ৪৫টি বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করে। হামলাকারীরা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, গাভী, ধান চাল, কাপড় চোপড়সহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। মান্নান মাতুব্বর সুজন সরদারের পক্ষের ৫টি বাড়ি ভাংচুর করে। বোয়ালমারী ও পাশের সালথা থানার পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। এসময় বোয়ালমালরী থানার এসআই জাকির হোসেনসহ ৫পুলিশ সদস্য ও উভয় গ্র“পের ৩০ আহত হয়। আহতদের মধ্যে সুজন গ্র“পের আতিয়ার (৪০), লুৎফর কাজী (৬৫), জাহাঙ্গীকে (৪০) ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও মান্নান মাতুব্বর গ্র“পের নিজাম খাঁ কে (৩৫) বোয়ালমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো ভর্তি করা হয়। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এব্যাপারে মান্নান মাতুব্বরের ভাই ১নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি ছিদ্দিক মাতুব্বর বলেন, নব্য আ’লীগার সুজন সরদার অন্যায় ভাবে আমার দলের নেতাকর্মীদের ঘরবাড়ি ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাট করেছে। তারা আরাজি গ্রামের সালাম বিশ্বাসের বাড়ি থেকে নগদ সাড়ে ছয়লাখ টাকা, ৭ভরি স্বর্ণলংকার ও দুই লাখ টাকা মুল্যে দুইটি গাভী লুট করে নিয়ে গেছে বলে জানান। এ ব্যাপারে সুজনের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। সুজন সরদারের বাবা মজিবর সরদার মোবাইলে বলেন, আমি বর্তমানে ঢাকা আছি, বৃহস্পতিবার রাতে নিজাম খাকে আমার পক্ষের লোকজন দুইটি থাপ্পড় মারার ঘটনা শুনেছি। কিন্তু আজ (শুক্রবার) সকালে কি ঘটেছে আমি জানি না। উল্লেখ্য সুজন সরদার গত ১১ ফেব্র“য়ারি স্থানীয় এমপি মো. আব্দুর রহমানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পরমেশ্বর্দী ইউপি চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা নুরুল আলম মিনার হাত ধরে আ’লীগে যোগদান করে। সে স্থানীয় ভাবে যুবদল নেতা হিসেবে পরিচিত ছিল। থানার এসআই মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল থেকে কমপক্ষে ৫জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/নীরব/কামরুল/ ২১ এপ্রিল ২০১৭