বাংলা নববর্ষ উদযাপনের জন্য পবিবারের সদস্যরা যে পোশাক কিনে এনেছিলেন, তা পছন্দ হয়নি। আর তাই অভিমানে আত্মহত্যা করলো ১৪ বছর বয়সী দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পুরুলিয়া জেলায়। খবর আজকালের।

শহরের শান্তময়ী বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী সুপ্রিয়া চ্যাটার্জি (‌১৪)। তার‌ বাড়ি পুরুলিয়া শহরের নামোপাড়ায়। গত শুক্রবার রাতেই গলায় দড়ি নিয়ে আত্মহত্যাক করে ওই ছাত্রী।

এদিকে, সুপ্রিয়ার এই আত্মহত্যা প্রসঙ্গে স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তার দাবি, কিশোর বয়স থেকেই বাড়ছে পুরুলিয়ায় আত্মহত্যার প্রবণতা। গত কয়েকমাসেই সেখানে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী। প্রতি ক্ষেত্রেই তাদের পরিবার ও পুলিশের সাথে কথা বলে জানা গেছে সামান্য বিষয়কে কেন্দ্র করে তর্কাতর্কি আর তারপরেই অভিমানে এমন চরম পথে বেছে নেওয়া।

হয়তো মোবাইল কিংবা সাইকেল নয়তো বা বন্ধুদের সাথে বেড়াতে যেতে দিতে হবে- এমন বায়নার কারণে পরিবারের সঙ্গে ঝামেলা আর তারপরেই আত্মহত্যার পথে হাঁটা। কিন্তু, কৈশোরেই কেন অবচেতন মনকে খেয়ে নিচ্ছে আত্মহত্যার প্রবণতা?‌ এই ধরনের একের পর এক ঘটনা উদ্বিগ্ন আমরাও,দাবি পুলিশকর্তাদের।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/কামরুল/নীরব/০৯ এপ্রিল ২০১৭