সাক্ষাৎকারে করিনা কপূর খান জানিয়েছিলেন, সারার জন্যই ওই অলিখিত নিয়মটা ভাঙতে বাধ্য হয়েছিলেন তাঁরা। সেফ-করিনার ‘নো কিসিং ক্লজ’এ বিপদে পড়েছিলেন বহু পরিচালকই। সেই বিপদ থেকে তাঁদের শেষমেশ উদ্ধার করতে পেরেছেন সারা আলি খান।

নবাব আর তাঁর বেগম অনস্ক্রিন লিপলক না করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছিলেন স্রেফ সারার কথাতেই। সেফ এবং অমৃতা সিংহের মেয়ে সারার বক্তব্য ছিল, এখনকার যুগে অভিনয় করতে গিয়ে চুমু না খাওয়াটাই খুব অস্বাভাবিক। অকাট্য যুক্তি! অতএব মেনে নিতেই হয়েছিল বেবো আর ছোটে নবাবকে! পরে সাক্ষাৎকারে করিনা কপূর খান জানিয়েছিলেন, সারার জন্যই ওই অলিখিত নিয়মটা ভাঙতে বাধ্য হয়েছিলেন তাঁরা। ফলে ‘কি অ্যান্ড কা’তে অর্জুন কপূরকে আর ‘রেঙ্গুন’এ কঙ্গনা রানাউতকে চুমু খেতে দেখা গিয়েছিল করিনা আর সেফ’কে!

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এ এন/আই এ/এ আর/১৮ মে ২০১৭