ফয়সাল মুরাদ, নীলফামারী : নীলফামারীতে যাত্রিবাহী বাসের ধাক্কায় আনারুল ইসলাম (৩০) নামের এক যুবক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন।

বুধবার দুপুর একটার দিকে জেলা সদরের নীলফামারী-ডোমার সড়কের পলাশবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ ভবণের অদূরে ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত আনারুল ইসলাম পলাশবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ তথ্য কেন্দ্রের উদ্যোক্তা এবং একই ইউনিয়নের আরাজি ইটাখোলা গ্রামরে গোলাম মোস্তফার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে নীলফামারী সদর থানার উপ-পরির্দশক জাহাঙ্গীর আলম জানান, দুপুর একটার দিকে আনারুল ইসলাম মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিল।

এসময় ডোমার থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামি এইচ.এ এন্টারপ্রাইজ নামের (ঢাকা মেট্রো জ-১১-০১২২) একটি যাত্রিবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধলে বাসটি সড়কের নীচের জমিতে উল্টে পড়ে। এতে ওই বাসের নীচে চাপ পড়ে আনারুল। তাকে স্থানীয় জনগণ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহায়তায় উদ্ধার করে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে হাসপাতালে যাওয়ার পথেই সে মারা যায়।

এছাড়াও ওই বাসের পাঁচ যাত্রীর মধ্যে আব্দুল হালিম (৪০) নামের আহত আরও এক যাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতাল নিয়ে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ঘটনার পর থেকেই বাসের চালক, হেলপার ও সুপারভাইজার পালিয়ে গেছে। বাসটি উদ্ধার করে থানায় আটক রাখা হয়েছে। নীলফামারী সদর আধুনিকহাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রেশমা খাতুন বলেন, দুপুর পৌনে দুইটার দিকে আনারুলকে তার স্বজনরা নিয়ে আসেন। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও ওই দুর্ঘটনায় আহত একজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলেগেছেন। নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবুল আখতার বলেন, অভিযোগ না থাকায় আনারুলের মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তানন্তর করা হয়েছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/নীরব/কামরুল/ ২০ এপ্রিল ২০১৭