পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ির ক্ষুদিরামপল্লিতে এটিএমে ঢুকেছিলেন রাজারাম। কিন্তু টাকা নেই জানতে পেরে নিজের অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স দেখতে চান। আর তাতেই হাত পা ঠান্ডা হওয়ার জোগাড়। জানতে পারেন, তার অ্যাকাউন্টে জমা পড়েছে প্রায় হাজার কোটি টাকা (৯৯৯ কোটি রুপি)! কর্মক্ষেত্রে গিয়ে প্রতিদিন অন্তত ১২ বার স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন। কিন্তু সেই মুহূর্তে ভুলে যান স্ত্রীর নম্বরও। রওনা দেন বাড়ির পথে।

রাজারাম রুপার গয়নার দোকানে দৈনিক চুক্তিতে কাজ করেন। এক কথায় দিনমজুর। কিন্তু রাতারাতি ‘ধনী’ হয়ে ঘুমাতে পারেননি পুরো রাত। বিছানায় ঠেকাননি পিঠ, শুধুই পায়চারি। বাইরে আলো ফুটল কিনা দেখতে আধঘণ্টা পর পর জানালা খুলছিলেন। কনকনে শীতের রাত, তবুও গায়ে রাখতে পারছিলেন না একটা কাপড়ও। গ্রষ্মীর গরম যেন তাকে গ্রাস করেছে।

স্বামীর এমন কাণ্ডে সারারাত ঘুমাতে পারেননি স্ত্রী মনীষাদেবীও। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘রাত দু’টো পর্যন্ত ওনি ঘরে পায়চারি করেছেন। বারবার পকেটে হাত দিচ্ছিলেন। আমি তো ভাবলাম বুকে ব্যথা শুরু হচ্ছে বুঝি। রাত ৩টার দিকে আবার এটিএমে যেতে চাইছিলেন তিনি। কিন্তু আমার আপত্তিতেই যেতে পারেননি।’

মনীষাদেবী আরো বলেন, ‘অ্যাকাউন্টে বিপুল টাকার খবর জানতে পারলে আয়কর বিভাগ হানা দেবে, পুলিশ এসে ধরবে। এই ভয়ই যেন ওনাকে চেপে বসে। মাঝরাতে টিভিতে খবরের চ্যানেল দেখতে শুরু করেন।’

শনিবার ভোরের আলো ফুটতেই ঘর থেকে বেরিয়ে যান রাজারাম। অন্য একটিটি এটিএমে গিয়ে ফের ব্যালেন্স চেক করেন। কিন্তু দেখেন, তার অ্যাকাউন্টে এবার মাইনাস ব্যালেন্স। তাও দু’এক টাকা নয়। ৯৯৯ কোটি রুপি! এবার মাথায় হাত। দ্রুত ছুটে যান ব্যাংক ম্যানেজারের কাছে। খুলে বলেন সব ঘটনা।

ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তখন বলে, এতো বেশি টাকা কারও অ্যাকাউন্টে জমা পড়লে আয়কর বিভাগের চোখে ধরা পড়তো। এটা আসলে যান্ত্রিক ত্রুটি। ব্যাংকের এ কথা শুনে হাফ ছেড়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন রাজারাম। পুলিশের পক্ষ থেকেও তাকে অভয় দেয়া হয়।

এরপরই সংবাদ মাধ্যমের কাছে মুখ খুলেন রাজারাম। বললেন, ‘চিন্তায় রাতে ঘুম আসছিল না। কিন্তু ভোর ৪টার দিকে হঠাৎ চোখের পাতা লেগে আসে। যদিও একঘণ্টার বেশি ঘুমাতে পারিনি।’

রাজারাম আরো বলেন, বিষয়টি পুলিশকে জানাতে চেয়েছিলাম রাতেই। কিন্তু ফোন করতে গিয়ে দেখি রাত সাড়ে ৩টা বাজে। এতো রাতে ফোন করলে হিতে বিপরীত হতে পারে, এমন ভেবে আর করিনি।’

এদিকে শিলিগুড়ি পুলিশের ডেপুটি কমিশনার সংমিত লেপচা বললেন, ‘ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা হয়েছে। সোমবার ব্যাংক খোলার পর পুরো বিষয়টি পরিষ্কার হবে। যদিও ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সার্ভারের কোনো সমস্যার কারণে ব্যালেন্সে ভুল হতে পারে।’

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আই/নীরব/এস আর/ ২৫ ডিসেম্বর,২০১৬