ঝিনাইদহ সদর উপজেলার চুয়াডাঙ্গা গ্রামে দুইটি জঙ্গি আস্তানার অভিযান সমাপ্তি ও তিনটি আস্তানায় অভিযান শুরু করা হয়েছে। আস্তানার ২০০ গজ এলাকার মধ্যে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে প্রেস ব্রিফিংকালে র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক খন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, ঝিনাইদহ সদরের ধানহাড়িয়া-চুয়াডাঙ্গা গ্রাম থেকে গত রাতে সেলিম ও প্রান্ত নামে দুই নব্য জেএমবি’র সদস্যকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। আজ সকাল ৭টার দিকে চুয়াডাঙ্গা গ্রামের জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে সেলিম ও প্রান্ত বাড়ি দু’টি ঘিরে অভিযান শুরু করা হয়। সকাল ১০টার দিকে খুলনা থেকে র‌্যাবের বোমা নিস্ক্রিয় দলের  সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। তারা প্রান্ত’র বাড়ির পার্শ্বের বাঁশবাগানের নিচে গর্ত খুড়ে দু’টি সক্রিয় সুইসাইডাল ভেস্ট বোমা উদ্ধার করে।

প্রান্তর বাড়িতে অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এখন সেলিমের বাড়ির পাঁচটি স্পটে অভিযান চলছে। এ অভিযানকালে দুপুর ২টার দিকে সেলিমের বাড়ির পাশের গর্ত খুড়ে চারটি সক্রিয় বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে আরও বোমা ও বিস্ফোরকদ্রব্য থাকতে পারে বলে তিনি ধারণা করছেন। সন্ধ্যা নাগাদ এ অভিযান শেষ হতে পারে বলে জানান।

অভিযান চলাকালে পার্শ্ববর্তী বাড়ি ঘরের লোকজনদের বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। ফলে কাজকর্ম ফেলে বাধ্য হয়েই সবাইকে গৃহবন্দী থাকতে হচ্ছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/এ আর/এইচ কে/ ১৬ মে ২০১৭