আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের ঝাড়খন্ডে কয়লাখনিতে ধস নামায় আটজন নিহত হয়েছে। খনিটিতে এখনো ২৩ জন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন । বৃহস্পতিবার রাতে গোড্ডা জেলার ইর্স্টান কোলফিল্ডস লিমিটেডের (ইসিএল) কয়লাখনিতে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, খনিটির প্রায় ২০০ ফুট নিচে কাজ করছিলেন কর্মীরা। বৃহস্পতিবার রাত ৭টা ৩০ মিনিটের দিকে কর্মীরা খনির দরজা দিয়ে বের হচ্ছিল। এসময় ধস নামলে ওই পথটি কাদামাটিতে ঢেকে যায়। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে গোড্ডা জেলার পুলিশ কর্মকর্তা ও বিপর্যয় মোকাবেলা দল পৌঁছায়। শুক্রবার সকাল থেকে উদ্ধারকাজ শুরু হয়।

জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা আর কে মল্লিক জানিয়েছেন, এ পর্যন্ত সাতজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে ২৩ জন। এছাড়া খনির ভেতরে প্রায় ৭০ টি গাড়ি আটকা পড়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ হুড়মুড়িয়ে ধস নেমে আসে । তখন খনিতে পুরোদমে কাজ চলছিল।

ইসিএল একটি সংস্থাকে লালমাটিয়ার এই খনির টেন্ডার দিয়েছিল। সেই সংস্থার তত্ত্বাবধানে কাজ চলছিল। সংস্থার পরিচালক সঞ্জয় সিংহের দাবি, যত লোকের আটকে থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে, সেই পরিমাণ লোক খনিতে ছিল না।

ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস মুখ্যসচিব ও ডিজিকে উদ্ধার তৎপরতার ওপর নজর রাখতে নির্দেশ দিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যে নিহতদের জন্য ২ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেছেন।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ হায়াত/ আশা/এস আর/ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬