পোলাও কিংবা বিরিয়ানির সাথে মুরগির রোস্ট ছাড়াও আরো একটি খাবার বেশ ভালো মানিয়ে যায়, তা হলো চিকেন রেজালা। সাধারণত রেজালা বলতে খুব ঝাল গরু কিংবা খাসির মাংসকেই বুঝি আমরা। কিন্তু মুরগি মাংস দিয়েও একটি মিষ্টি স্বাদে রান্না করা যায় মজাদার এই খাবারটি। মুরগির মাংসের ভিন্ন স্বাদ পেতে আপনিও রাঁধতে পারেন এই ডিশ।

উপকরণ:

৭ সে.মি আদা কুচি

৫টি লবঙ্গ

১ চা চামচ সাদা গোল মরিচ গুঁড়ো

লবণ

৮টি মুরগির টুকরো

বাদামের পেস্ট

১ টেবিল চামচ কাজুবাদাম

১ চা চামচ সাদা পেঁপের বিচ

সস তৈরির জন্য

২ টেবিল চামচ ঘি

৪টি এলাচ

দারুচিনি

১ চা চামচ কালো গোলমরিচ

১ চা চামচ ধনিয়া

৩টি পেঁয়াজ কুচি

৩টি তেজপাতা

৪টি লবঙ্গ

৩টি কাঁচা মরিচ

৩-৪ টেবিল চামচ টকদই

২ চা চামচ চিনি (ইচ্ছা)

১/২ টেবিল চামচ গোলাপজল

এক চিমটি জাফরান

১ লিটার দুধ

সাজানোর জন্য

২ টেবিল চামচ তেল

১/২টা পেঁয়াজের রিং

৪টি শুকনো লাল মরিচ

লবণ

ধনিয়া

প্রণালী:

১। একটি পাত্রে মুরগির মাংস, লবণ, সাদা গোল মরিচ গুঁড়ো, আধা চা চামচ আদা রসুনের পেস্ট এবং দুই টেবিল চামচ টকদই একসাথে মিশিয়ে এক ঘন্টা মেরিনেট করে রাখুন।

২। ব্লেন্ডারে কাজুবাদাম এবং পেঁপের বীজ একসাথে ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করুন। প্রয়োজনে এতে কিছুটা পানি মেশান।

৩। একটি প্যানে ঘি গরম করতে দিন। ঘি গরম হয়ে এলে এতে কালো গোলমরিচ, এলাচ, লবঙ্গ, দারুচনিন, তেজপাতা এবং ধনিয়া দিয়ে দিন।

৪। সবগুলো উপাদান ৩০ সেকেন্ড ভাজুন। এরপর এতে কাঁচা মরিচ, কাজুবাদাম এবং পেঁপের বীচের পেস্ট দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়ুন।

৫। টকদই দিয়ে আবার কিছুক্ষণ নাড়ুন। এরপর সসের মধ্যে মুরগির মাংসের টুকরোগুলো দিয়ে দিন।

৬। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৩০-৪০ মিনিট রান্না করুন।

৭। মুরগি সিদ্ধ হয়ে এলে এতে জাফরান দুধ, চিনি, গোলাপজল দিয়ে দিন। যদি কিছুটা ঝোল রাখতে চান তবে এরসাথে কিছুটা গরম পানি মেশাতে পারেন।

৮। লাল শুকনো মরিচ এবং পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার চিকেন রেজালা।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/আই এস/এইচ কে/এ আর/৭ই মে, ২০১৭