নিজস্ব প্রতিবেদক: গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের অলুয়া গ্রামের রওশন আলীর ছেলে সোহেল পিস্তল দেখিয়ে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্যদের হত্যার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর স্থানীয় অলুয়া মসজিদের সামনে।

ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ এসআই আশিষ ওই রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে না পেয়ে তার বাড়ী থেকে একটি ধারালো ছুড়ি ও একটি দা উদ্ধার করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সোহেল কৌশলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ চলে গেলে এলাকায় ফিরে সে আবারও মসজিদ কমিটির কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে প্রকাশ্যে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় মুসুল্লিসহ এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে আতংঙ্ক বিরাজ করছে।

মসজিদ কমিটির সভাপতি মো: মফিজুল হক, সম্পাদক জাকির, জমিদাতা আব্দুল হান্নান সহ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যাক্তি জানান, মসজিদের ওয়াকফাকৃত জমি ও সরকারী হালটটি জোর পূর্বক ভোগ দখল করে আসছে সন্ত্রাসী সোহেল। তার বিরুদ্ধে কেউ কোনো কথা বললে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দেয়।

সরেজমিনে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত মসজিদে মুসুল্লিদের নামাজের জায়গার সংকুলান না হওয়ায় গত শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে মুসুল্লিসহ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্যরা মসজিদের নতুন ভবন র্নিমানের জন্য আলোচনায় বসেন। আলোচনা চলাকালে মসজিদের পাশের বাড়ির সন্ত্রাসী সোহেল এসে মসজিদ কমিটির সদস্যদের বলে এখানে কিসের মাপামাপির কথা হচ্ছে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায় সোহেল ক্ষীপ্ত হয়ে বলে রাখ দেখাচ্ছি মজা বলে দৌড়ে বাড়ির ভেতর গিয়ে একটি পিস্তল নিয়ে উপস্থিত হলে মুসুল্লিরা সোহেলের হাতে পিস্তল দেখতে পায়। পরে চানমিয়া ও জাকারিয়া তাকে ঝাপটে ধরলে পিস্তল থেকে একটি বুলেট খসে মাটিতে পড়ে যায়। পরে বুলেটটি মাটি থেকে তুলে সোহেল পালিয়ে যায়।