দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ার পার্বত্য অঞ্চলে ভূমিধসে অন্তত ১৭ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ভারী বৃষ্টিপাতের পর মাটি ও পাথর চাপা পড়ে তারা নিহত হন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত সাতজন। বুধবার জার্মান কর্তৃপক্ষ নিহত ও নিখোঁজের এ সংখ্যা নিশ্চিত করেছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ।

কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস বলেন, নিখোঁজ ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে আমরা সাহায্য করছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে এ সংখ্যা বাড়ছে।

ভারী বৃষ্টিপাত ও ভূমিধসে অন্তত ৫৭টি বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব ঘরবাড়ির অধিকাংশই খাড়া পাহাড়ের ওপর তৈরি করা হয়েছিল।

ভূমিধসে নিহত ব্যক্তিরা কলম্বিয়ার পশ্চিমাঞ্চলের মানিজালেস পার্বত্য অঞ্চলের বাসিন্দা। চলতি মাসে কলম্বিয়ায় এটি দ্বিতীয় মর্মান্তিক ভূমিধসের ঘটনা। এর আগে এপ্রিলের গোড়ার দিকে ভারি বৃষ্টিজনিত আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে নিহত হন অন্তত ৩২০ জন। গৃহহীন হন কয়েক হাজার মানুষ। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে কলম্বিয়ার প্রতিবেশী দেশ পেরুতেও ভারী বৃষ্টিপাতজনিত বন্যা ও ভূমিধসে ৯০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

কলম্বিয়ার পশ্চিমাঞ্চলের মানিজালেস পার্বত্য অঞ্চলে চলতি মাসে দ্বিতীয় দফায় ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হলে হিমবাহ ও বন্যার আতঙ্কে শঙ্কিত হয়ে পড়েন আন্দিজ পর্বতমালা সংলগ্ন এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা। মানিজালেস এলাকায় গত মাসখানেক ধরে প্রায় নিয়মিত বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ভূমিধস কবলিত এলাকাগুলোতে পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ স্থগিত রাখা হয়েছে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/হায়াত/কামরুল/নীরব/২০ এপ্রিল, ২০১৭