টাইমস ওয়ার্ল্ড ডেস্ক: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে পরিবর্তনের ফলে ব্যাংকটির লেনদেন, ব্যবস্থাপনা ও পরিকল্পনায় কোনো প্রভাব পড়বে না।

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে এক বৈঠকে শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এর আগে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) এক প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেন মন্ত্রী। এমসিসিআইয়ের সভাপতি নিহাদ কবির প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।

অর্থমন্ত্রী আরও জানান, ব্যবসার দিক দিয়ে ইসলামী ব্যাংক দেশের এক নম্বর ব্যাংক। এর ব্যাংকিং কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। আর সবকিছু নিয়ম মেনেই করা হয়েছে।

ব্যাংকটির মালিকানা কোনো ব্যবসায়ী গ্রুপের হাতে যাচ্ছে কি-না—সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে মুহিত বলেন, এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই। তবে প্রতিষ্ঠানটিতে এস আলম গ্রুপের কোনো শেয়ার নেই বলেও এসময় নিশ্চিত করেন তিনি।

সিএসআরের অর্থ অপব্যবহারের অভিযোগ প্রসঙ্গে মুহিত বলেন, ‘৭/৮ মাস ধরে টাকা পড়ে আছে। মূলত কোনো অপব্যবহার হয় নাই। তবে নির্দিষ্ট একটা গ্রুপের কাছে টাকা চলে যাওয়ার ব্যাপারটা আর হবে না।’

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত পরিচালনা পর্ষদের সভায় ইসলামী ব্যাংকের শীর্ষ পর্যায়ে ব্যাপক রদবদল করা হয়। পুনর্গঠন করা হয় পরিচালনা পর্ষদ। পর্ষদের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোস্তফা আনোয়ারকে সরিয়ে নতুন চেয়ারম্যান করা হয় সাবেক সচিব আরাস্তু খানকে। পদত্যাগ করেন ব্যাংকের এমডি মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান। নতুন এমডির দায়িত্ব দেওয়া হয় ইউনিয়ন ব্যাংকের এমডি মো. আব্দুল হামিদ মিঞাকে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এস আর/ নীরব/হায়াত/ ৮ই জানুয়ারী, ২০১৭