টাইমস ওয়ার্ল্ড ডেস্ক: ভারতের বিশাখাপত্তমে অবস্থিত অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ৯০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং সেই সঙ্গে প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তির ১০ম বার্ষিকী উপলক্ষে ৩ দিনব্যাপী এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মূল বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ইউনূস।

এর আগে প্রফেসর ইউনূসকে স্বাগত জানান অন্ধ্র প্রদেশের মানবউন্নয়ন মন্ত্রী গান্ত শ্রীনিবাস রাও এবং অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর নাগেশ্বর রাও। এছাড়া অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগও প্রফেসর ইউনূসকে অভ্যর্থনা জানায়।

এ সময় অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর নাগেশ্বর রাও জানান, অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয় একটি আন্তঃবিভাগীয় ব্যবস্থা হিসেবে সেখানে একটি ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে। সামাজিক ব্যবসা বিষয়ক গবেষণা পরিচালনা ও তরুণ উদ্যোক্তাদের সামাজিক ব্যবসায়ে উৎসাহিত করতে এই ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্রটি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে তিনি উপস্থিত সবাইকে অবহিত করেন।

সামাজিক ব্যবসার ধারণা কীভাবে বিস্তৃতি লাভ করলো এবং এক্ষেত্রে অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয় কী ভূমিকা নিতে পারে এ প্রসঙ্গে প্রফেসর ইউনূস জোর দিয়ে বলেন যে, “সামাজিক ব্যবসা মডেল শুধু তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতেই নয় বরং সমগ্র বিশ্বের মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে আসবে। তরুণদেরকে চাকরি খোঁজার বদলে বরং উদ্যোক্তা হতে হবে। উদ্যোক্তা হবার প্রেরণা তরুণদের মধ্যে জাগ্রত করে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো তাদের জনসংখ্যাগত সুবিধা কাজে লাগাতে।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এস আর/ নীরব/হায়াত/ ৮ই জানুয়ারী, ২০১৭